গাজর খান; অসুখ-বিসুখ দূরে রাখুন

প্রকাশের সময় : 2019-12-18 11:26:23 | প্রকাশক : Administration
গাজর খান; অসুখ-বিসুখ দূরে রাখুন

সিমেক ডেস্কঃ বাংলাদেশে গাজর বেশ সহজলভ্য একটি সবজি। এটি খেতে খুব সুস্বাদু। গাজর তরকারি বা হালুয়া বানিয়ে খাওয়ার পাশাপাশি কাঁচাও খাওয়া যায়। গাজরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ।

১. গাজরে রয়েছে আলফা ক্যারোটিন, বিটা ক্যারোটিন ও লুটেন। তাই নিয়মিত গাজর খেলে হার্টও থাকে সুস্থ। এছাড়া গাজরে রয়েছে প্রচুর ক্যারোটিনয়েড, যা ইনসুলিন প্রতিরোধ করে। ফলে রক্তে শর্করার মাত্রাও নিয়ন্ত্রিত থাকে। গাজরে রয়েছে প্রচুর পটাসিয়াম। এই পটাশিয়াম রক্ত সঞ্চালন প্রক্তিয়া স্বাভাবিক রাখে। ফলে, রক্ত জমাট বাঁধে না সহজে। তাই উচ্চ রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণ করে।

২. বেশ কিছুক্ষণ পেটও ভরিয়ে রাখতে পারে এই সবজি। তাই ক্যালরিযুক্ত খাবারের পরিবর্তে গাজর ওজন কমাতে সাহায্য করে। পুষ্টিবিদদের মতে, তরকারি বা হালুয়া করে নয়, কাঁচা গাজর খেলেই বরং বেশি উপকার পাওয়া যায়। বিভিন্ন পুষ্টিগুণে ভরপুর গাজর আমাদের অনেক অসুখ-বিসুখ থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করে।

৩. এসবের পাশাপাশি, গাজরে রয়েছে

ফ্যালক্যারিনল নামে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি স্তন ক্যানসার, কোলন ক্যানসার ও ফুসফুসের ক্যানসার প্রতিরোধ করে। বিটা ক্যারোটিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকার কারণে গাজর ত্বককেও সুস্থ রাখে। বলিরেখা প্রতিরোধ করে এবং ত্বককে নরম রাখে।

আর এসব উপকার পেতে হলে নিয়মিত গাজর খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। এমনিতে সম্ভব না হলেও অন্তত দুপুর বা রাতের খাবারের সঙ্গে সালাদে গাজর রাখতে পারেন। - সূত্রঃ অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com