পাখি না ডাইনোসর

প্রকাশের সময় : 2020-02-26 10:47:32 | প্রকাশক : Administration
পাখি না ডাইনোসর

সিমেক ডেস্কঃ চীনে আবিষ্কার হওয়া জীবাশ্ম দেখে নতুন দিশা পেলেন বিজ্ঞানীরা। ডাইনোসর থেকে পাখির বিবর্তনের পথে যে ফাঁকফোকর তারা এতদিন খুঁজে পাননি, এবার হয়তো তার কিছুটা সমাধান হতে পারে। যে জীবাশ্মটি নিয়ে এখন সবচেয়ে বেশি আলোচনা চলছে, সেটির বয়স অন্তত ১২ কোটি বছর।

চীনের জেহোল এলাকায় জীবাশ্মটি পাওয়া যায়। এক কৃষক চাষ করার সময় প্রথম এটি দেখতে পান। উদ্ধার করার পর এটি দীর্ঘদিন ফেলেই রাখা হয়েছিল। সম্প্রতি এ জীবাশ্ম নিয়ে গবেষণা শুরুর পর চমকপ্রদ তথ্য উন্মোচন হতে থাকে। এতে ডাইনোসর আর পাখি- দুই প্রজাতির বৈশিষ্ট্য খুঁজে পান বিজ্ঞানীরা। দুটি পা-যুক্ত এ প্রাণীটি ক্রিটেসাস যুগের। সে সময় পৃথিবীতে ডাইনোসররা দাপিয়ে বেড়াত।

দি অ্যানাটমিক্যাল রেকর্ড পত্রিকায় সম্প্রতি এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, জীবাশ্মটিতে পালকের মতো নরম টিস্যু পাওয়া গেছে। ওই টিস্যু সামনের ও পেছনের পায়ে মিলেছে । হাড়যুক্ত একটি লম্বা লেজের মতো অংশও পাওয়া গেছে। বড় বড় দুটি পালকের অস্তিত্বও মিলেছে।

সান দিয়েগো  ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামের একজন বিজ্ঞানী অ্যাসলে পাউস্টের মতে, এই জীবাশ্ম ডাইনোসরের পালক, পাখির চেয়ে একটু অন্যভাবে বেড়েছিল। এমনও হতে পারে, ডাইনোসরের এমন পালক ও লেজ নির্দিষ্ট কোনো কাজের জন্য তৈরি হয়েছিল। ফলে এটি ডাইনোসর নাকি ডাইনোসর ও পাখির মধ্যবর্তী কোনো প্রাণী, পরে তার হয়তো যথাযথ সমাধান মিলবে। - সূত্রঃ অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com