জোকস্

প্রকাশের সময় : 2019-08-28 17:49:28 | প্রকাশক : Administration

জোকস্

সংগ্রহেঃ রোমেল হোসাইন

 

লঞ্চ থেকে নদীতে পড়ে গেল তরুণীঃ

 

লঞ্চে করে একবার বাড়ি যাচ্ছিল বৃদ্ধ মকফর। হঠাৎ করে লঞ্চ থেকে এক তরুণী নদীতে পড়ে গেল। তা দেখে সবাই চিৎকার শুরু করল, ‘বাঁচাও, মেয়েটাকে কেউ বাঁচাও’।

অথচ কেউ নামল না। নামল বৃদ্ধ মকফর। সবাই অবাক হয়ে গেল ৬০ বছরের বৃদ্ধের কান্ড দেখে। মকফর মেয়েটিকে নিয়ে লঞ্চে উঠলে সবাই তার প্রশংসা করতে লাগল। মকফর রেগেমেগে বলল, ‘আমারে ধাক্কা দিয়া নিচে ফালাইছে কোন শালা’?

 

কার স্ত্রী কতটা ভালোঃ

 

কার স্ত্রী কতটা ভালো তা নিয়ে কথা বলছে তিন বন্ধু;

প্রথম বন্ধুঃ আমার ময়নার কোনো তুলনা নেই। চা খেতে গিয়ে আমার হাত থেকে কাপ পড়ে টুকরো টুকরো হয়ে গেল। সোহাগী সেটা নিয়ে এমনভাবে আঁঠা লাগিয়ে দিল যে বোঝারই উপায় নেই ওটা ভেঙেছিল।

দ্বিতীয় বন্ধুঃ একবার আমার প্যান্ট ছিঁড়ে গেল। আমার বউ অহনা এমনভাবে তা সেলাই করে দিল, দেখে বুঝতেই পারবে না ওটা কোনকালে ছিড়ে গিয়েছিল।

তৃতীয় বন্ধুঃ আমার বউ চায়না শার্টটা এমনভাবে ধুয়ে দিয়েছে যা বোঝার উপায়ই নেই যে ওটা ধোয়া হয়েছে।

আমার স্বামী তো বেঁচে থাকবেঃ

একদিন এক প্রসূতি নারী জ্যোতিষীর কাছে হাত দেখাতে গেল। হাত দেখে জ্যোতিষী বলল;

জ্যোতিষীঃ তোমার এই বাচ্চার জন্মের সাথে সাথে এর বাবা মারা যাবে।

নারীঃ যাক বাবা, বাঁচলাম।

জ্যোতিষীঃ এ কথা শুনে তুমি খুশি?

নারীঃ কারণ বাচ্চার বাবা মারা গেলেও আমার স্বামী তো বেঁচেই থাকবে!

 

সেলাইয়ের সময় যেন ব্যথা না দেইঃ

 

এক লোক মারাত্মক আহত হয়েছে। হাতে লম্বা সেলাই লাগবে। অপারেশন টেবিলে শুয়ে সে কাতর চোখে ডাক্তারকে বলল-

রোগীঃ ডাক্তার সাহেব, একটা কথা ছিল।

ডাক্তারঃ কী কথা বুঝতে পেরেছি। আর বলতে হবে না। সেলাইয়ের সময় যেন ব্যথা না দেই, এই তো?

রোগীঃ না না, তা নয় ডাক্তার সাহেব, সেলাই তো করবেনই। সাথে আমার শার্টের হাতার বোতামটাও একটু সেলাই করে দিয়েন, ছুঁটে গেছে।

 

মেয়েদের পরিবর্তনঃ

 

মেয়েরা, Airtel এর মতো হঠাৎ পাশে আসে আর Robi এর মতো জ্বলে ওঠে।

কিছুদিন পর, Banglalink এর মতো বদলে যায়।

আর, Grameenphone এর মত বহুদূরে চলে যায়।

 

সম্পাদক ও প্রকাশক: সরদার মোঃ শাহীন
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম সুজন
বার্তা সম্পাদক: ফোয়ারা ইয়াছমিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আবু মুসা
সহ: সম্পাদক: মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিস: ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
বার্তা বিভাগ: বাড়ি # ৩৩, রোড # ১৫, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com