জোকস্

প্রকাশের সময় : 2019-10-09 18:41:27 | প্রকাশক : Administration

জোকস্

সংগ্রহেঃ  রোমেল হোসাইন

ছাত্র এবং শিক্ষকঃ

শিক্ষকঃ I Love You কথাটি কোন দেশ আবিষ্কার করেছে?

ছাত্রঃ স্যার, চায়না।

শিক্ষকঃ কীভাবে!

ছাত্রঃ এর কোনো গ্যারান্টিও নেই, কোয়ালিটিও নেই। টিকলে সারাজীবন টিকে যায়, না টিকলে ২ দিনও টিকে না!

গ্যাস ডেলিভারির নিয়মঃ

এক গৃহবধূ গ্যাসের ডিলারকে ফোন করতে গিয়ে ভুল করে গাইনি ডাক্তারকে ফোন করলেন

গৃহবধূঃ "আচ্ছা, ডেলিভারির ক’দিন পরে আবার বুক করা যাবে?"

ডাক্তারঃ "তা ছ-সাত মাসের আগে তো নয়ই।"

গৃহবধূঃ "সে কি। তাহলে এতোদিন খাবো কী?"

ডাক্তারঃ "কেন? ওরাল পিল!"

বর বউ এর  মজাদার খুঁনসুটিঃ

বৌঃ তোমার মনে আছে বিয়ের দিন আর বৌভাতের দিন আমি কি কি রঙের শাড়ী পড়েছিলাম?

বরঃ রেল লাইনে কেউ সুইসাইড করতে গেলে সে কি দেখে যে তিস্তা আসছে না বহ্মপূত্র?

মাশরুম খেলে মৃত্যু হতে পারেঃ

স্বামী-স্ত্রীর ইচ্ছা হলো মাশরুম খাওয়ার। কিন্তু মাশরুম বিষাক্ত হয়। তাই তারা ঠিক করলো আগে সেটা তাদের কুকুরকে খেতে দেবে। খেতে দেওয়ার পর কুকুর  না মরে বেঁচে রইলো।

তখন তারা মাশরুম খেলো! কিছুক্ষণ পর ছোট ছেলে বাইরে থেকে এসে বলতে থাকলো, ‘বাবা, বাবা, আমাদের কুকুরটা না মারা গেছে!’

তখন দুজনই বলে উঠলো, ‘হায়! হায়! এ কী হলো!’ স্বামী স্ত্রীকে বলল, ‘ওগো আমরা তো মারাই যাব। তার আগে একটা সত্যি কথা বলবে? আমাদের ৪ ছেলের ৩ জনই এত বুদ্ধিমান কিন্তু ছোট ছেলেটা এত বোকা। সত্যি কি ও আমার সন্তান?’

স্ত্রী বলল, ‘ওগো, শুধু ও-ই যে তোমার সন্তান!’ ঠিক সে সময় বড় ছেলে এক লোককে নিয়ে ভেতরে এসে বলতে থাকলো, ‘বাবা, এই সেই লোক। যার গাড়ির নিচে পড়ে আমাদের কুকুরটা মরেছে।’

টেনশন কাকে বলেঃ

শিক্ষকঃ বলতো বল্টু টেনশন কাকে বলে?

বল্টুঃ স্যার টেনশন হলো এমন একটা রোগ যা বুঝিয়ে না বললে আপনি বুঝবেন না।

শিক্ষকঃ যেমন?

বল্টুঃ স্যার আমাদের স্কুলের লায়লা ম্যাডাম এর সাথে আপনার সম্পর্কের কথা আমি জানি আর এটাও বলছি আমি আজ আপনার স্ত্রীকে বলে দেব।

শিক্ষকঃ বল্টু বাবা আমার লক্ষি সোনা এই সব কাউকে বলতে নেই।

বল্টুঃ আপনার ঘাম ঝরছে স্যার আর এটাই টেনশন।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com