শতভাগ পানির আওতায় নগরবাসী পদ্মা-যশোলদিয়া পানি শোধনাগার প্রকল্প

প্রকাশের সময় : 2019-10-24 12:06:44 | প্রকাশক : Administration
শতভাগ পানির আওতায় নগরবাসী পদ্মা-যশোলদিয়া পানি শোধনাগার প্রকল্প

ফিরোজ মান্নাঃ ঢাকা ওয়াসার পদ্মা-যশোলদিয়া পানি শোধনাগার প্রকল্পের সব কাজ শেষ। রাজধানীবাসীকে প্রতিদিন ৫০ কোটি লিটার পানি সরবরাহ দেয়া হবে এই শোধনাগার থেকে। প্রধানমন্ত্রী মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের যশলদিয়ায় পদ্মা ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের উদ্বোধন করেছেন। তবে রাজধানীতে বিতরণ লাইন এখনও পুরোপুরি না হওয়ায় উৎপাদিত সব পানি সরবরাহ সম্ভব হবে না। বিতরণ ব্যবস্থার কাজ চলছে। অল্পদিনের মধ্যে উৎপাদিত পানির সুবিধা নগরবাসী ভোগ করতে পারবেন।

পদ্মা নদী থেকে পানি এসে পড়ছে বিশাল শোধনাগারে। সেখানে পানি শোধন হচ্ছে। মোট ৯২ একর জমির ওপর নির্মিত এই শোধনাগার নির্মাণ করতে ৩ হাজার ৮শ’ কোটি টাকার বেশি খরচ হয়েছে। শোধনাগারের প্রাথমিক উৎপাদন ক্ষমতা ধরা হয়েছিল প্রতিদিন ৪৫ কোটি লিটার পানি। কিন্তু জরুরী সময়ে প্রতিদিন ৫০ কোটি লিটার পানি উৎপাদন করতে পারবেন।

প্রকল্প পরিদর্শন কালে মন্ত্রী বলেন, শতভাগ বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা কোনভাবেই সম্ভব না। পৃথিবীর উন্নত  দেশ গ্রেড ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি এমন কি আমেরিকাতেও শতভাগ বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করতে পারে না। তারা খাওয়ার জন্য বোতলজাত পানিই ব্যবহার করেন। এরপরও আমরা চেষ্টা করছি যতটা সম্ভব বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ দিতে। মুশকিল হচ্ছে উৎপাদনের জায়গা থেকে যখন বিতরণে লাইনে পানি ঢুকে যায় তখন কোন কারণে যদি বিতরণ লাইনে ত্রুটি থাকে তাহলে পানি নিরাপদ থাকে না। সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে বাড়ির ‘আন্ডারগ্রাউন্ড রিজার্ভার’ ও ‘ওভারহেড রিজার্ভার’ অপরিষ্কার থাকলে পানি নিরাপদ হবে না। এই জায়গায় বাড়ির মালিকদের সচেতন থাকতে হবে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, শতভাগ পানি নিরাপদ না হলেও নগরবাসী কিন্তু শতভাগ পানির আওতায় এসেছে। আগে ৬০ ভাগ মানুষ পানি পেত। বাকি ৪০ ভাগ মানুষের মধ্যে পানির জন্য হাহাকার ছিল। দিন বদল হয়েছে অনেক। এখন বস্তিবাসীও ওয়াসার পানি পাচ্ছে। কেউ কিন্তু এখন পানির সমস্যায় নেই।

বর্তমান সরকার স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, আইসিটিসহ বিভিন্ন খাতে যুগান্তকারী উন্নয়ন ঘটিয়েছে। সবার জন্য পানি নিশ্চিত করেছে। দেশে বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। দেশের মানুষকে নিরাপদ ও দুর্নীতি মুক্ত রাখতে অভিযান চালাচ্ছে। মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। সরকারের সাফল্য অনেক। বর্তমানে মাথাপিছু আয় ২ হাজার ডলার। আগামী কয়েক বছরে এই আয় দ্বিগুণ হবে। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে এতসব সম্ভব হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কারণেই আজকে যশোলদিয়ায় পানি শোধনাগার প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। কারণ ঢাকার চারপাশের নদীগুলো দূষিত হওয়ার কারণে পদ্মা থেকে নগরবাসীর জন্য পানি সরবরাহ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছেন।  - সূত্রঃ জনকণ্ঠ

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com