এশিয়ায় এবার সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশে

প্রকাশের সময় : 2019-10-24 12:07:15 | প্রকাশক : Administration
এশিয়ায় এবার সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশে

সিমেক ডেস্কঃ চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরে এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে মোট জিডিপি বাংলাদেশেই সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হতে পারে। এই প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। সংস্থাটি বলছে, চলতি অর্থবছরে একমাত্র বাংলাদেশই ৮ শতাংশের ঘরে প্রবৃদ্ধি অর্জন করবে। এ দেশে শিল্প, কৃষি ও প্রবাসী আয়ে শক্তিশালী প্রবৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে, যা প্রবৃদ্ধি অর্জনে সহায়ক হবে।

২০১৯ সালের এডিবি ডেভেলপমেন্ট আউটলুক আপডেটে এ পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। এতে আরও বলা হয়, অন্যান্য দেশের পূর্বাভাসে প্রবৃদ্ধি কমানো হলেও বাংলাদেশের ক্ষেত্রে তা করা হয়নি। এডিবির আউটলুক অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশ ছাড়া মাত্র দুটি দেশ ৭ বা এর বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে পারে। এর মধ্যে ভারত ৭ দশমিক ২ এবং তাজিকিস্তান ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে পারে। এ ছাড়া ৬ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে পারে মোট ১০টি দেশ। দেশগুলো হলো চীন, মঙ্গোলিয়া, উজবেকিস্তান,ভুটান, নেপাল, মালদ্বীপ, কম্বোডিয়া, লাওস, মিয়ানমার ও ফিলিপাইন।

বাংলাদেশে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ বলেন, বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধিতে তুলনামূলক দুর্বল অবস্থা থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশের বাণিজ্য বৃদ্ধির ধারা অব্যাহত থাকতে পারে। আগের চেয়ে বাড়তে পারে রপ্তানি ও প্রবাসী আয়। এ ছাড়া সরকারি বিনিয়োগ বৃদ্ধি এবং বড় প্রকল্প বাস্তবায়নের অগ্রগতির ফলে অর্থনীতিতে উদ্দীপনা অব্যাহত থাকবে। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের এশিয়ার ডেভেলপমেন্ট আউটলুকে বলা হয়েছে, এশিয়ায় বাংলাদেশেই সর্বোচ্চ ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে

তাঁর মতে, বাংলাদেশের সামনে মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদে প্রবৃদ্ধি টেকসই করতে কিছু চ্যালেঞ্জ আছে। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় শিল্পের সম্প্রসারণ, রপ্তানি বহুমুখীকরণ, গ্রাম ও শহর উন্নয়নে বৈষম্য কমানোর পাশাপাশি আর্থিক ব্যবস্থাপনা শক্তিশালী করা দরকার।

এডিবির আউটলুকের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন সংস্থাটির ঢাকা কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ অর্থনীতিবিদ সুন চ্যান হং। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্য বিরোধের কারণে বাংলাদেশের রপ্তানিতে তেজিভাব থাকতে পারে। প্রবাসী আয় বেশি এলে তা বেসরকারি ভোগকে আরও চাঙা করতে পারে। এর পাশাপাশি বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর চেষ্টা, ব্যবসায় পরিবেশের উন্নতির জন্য সংস্কার কার্যক্রম এবং বড় অবকাঠামোতে বিনিয়োগ বৃদ্ধির ফলে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির বর্তমান ধারা বজায় থাকার সম্ভাবনা বেশি বলে মনে করে এডিবি।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com