বিশ্ব সংবাদপত্রের শিরোনাম ছিল বাংলাদেশ

প্রকাশের সময় : 2019-12-18 11:08:05 | প্রকাশক : Administration
বিশ্ব সংবাদপত্রের শিরোনাম ছিল বাংলাদেশ

মোরসালিন মিজানঃ আর কখনও এ ঘটনা ঘটেছে কিনা, জানা নেই কারও। তবে ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে ঠিকই ঘটেছিল। নয় মাসের সশস্ত্র সংগ্রাম শেষে ১৬ ডিসেম্বর বিজয় অর্জন করেছিল বাঙালী। বিশ্বের প্রায় সব সংবাদপত্র সে খবর অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে ছাপিয়েছে। প্রত্যেকেরই শিরোনামে উঠে এসেছিল বাংলাদেশ নামটি। দেশ ও দেশের বাইরে থেকে সংগ্রহ করা দুর্লভ সংবাদপত্র দিচ্ছে এমন তথ্য।

পুরনো পত্রিকা ঘেটে দেখা যায়, যুদ্ধের খবর প্রথম থেকেই সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করে আসছিল দেশী পত্র-পত্রিকা। বিদেশী গণমাধ্যমেও এ সংক্রান্ত নানা খবর প্রতিদিন প্রকাশিত হয়েছে। তবে বাংলাদেশের যুদ্ধ জয় এবং পাকিস্তান বাহিনীর আত্মসমর্পণের খবর সর্বত্র হৈচৈ ফেলে দিয়েছিল।

পত্র-পত্রিকায় বাংলাদেশের যুদ্ধ জয়ের খবরটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করা হয়। কোন কোন দৈনিকের পুরোটা জুড়েই ছিল মুক্তিযুদ্ধ ও আগে-পরের ইতিহাস। প্রায় সব পত্রিকার প্রথম পাতায় আলাদা আলাদা ছবিসহ একাধিক স্টোরি ছাপা হয়। সবচেয়ে বেশি মনোযোগ কাড়ে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে নিয়াজির আত্মসমর্পণের ছবিটি। দেশীয় পত্রিকাগুলোর সংবাদ শিরোনামে বিশেষ প্রাধান্য পায় ঐতিহাসিক স্লোগান ‘জয় বাংলা’। যুক্তরাষ্ট্রসহ পাকিস্তানকে সমর্থন দেয়া অন্য দেশগুলোর কোন কোন পত্রিকায় কিছুটা ঘুরিয়ে বলার চেষ্টা লক্ষ্য করা যায়।

যুদ্ধ জয়ের পরদিন ১৭ ডিসেম্বর বাংলাদেশ থেকে বেশ কিছু পত্রিকা প্রকাশের তথ্য পাওয়া যায়। তবে ঢাকার পত্রিকাগুলো ওইদিন বা পরদিন এত বড় খবরটি দিতে ব্যর্থ হয়। এর অবশ্য কারণও আছে। একাত্তরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছিল ঢাকার সংবাদপত্র। পত্রিকার অফিস জ্বালিয়ে দিয়েছিল পাকিস্তানীরা। অব্যাহত বাধা ও প্রাণ হারানোর শঙ্কায় অফিস ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছিলেন সংবাদকর্মীরা। এর ফলে ১৬ ডিসেম্বর বা ১৭ ডিসেম্বর ঢাকা থেকে খুব কম পত্রিকা প্রকাশিত হয়েছিল বলে জানান তিনি।

তবে ১৭ ডিসেম্বর ‘দৈনিক পাকিস্তান’ পত্রিকাটি বিজয়ের খবর দিয়েছিল ‘দৈনিক বাংলা’ নামে। পত্রিকার মাস্টহেডে পাকিস্তান শব্দটির গায়ে ‘ক্রস’ চিহ্ন এঁকে দেয়া হয়। যোগ করা হয় ‘বাংলা’ শব্দটি। এভাবে দারুণ এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করা পত্রিকাটির ৮ কলামে লিড করা হয় বাঙালীর যুদ্ধ জয়ের সংবাদ। শিরোনাম ছিল ‘জয় বাংলার জয়।’ মূল ছবিতে দৃশ্যমান হয় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি। - সূত্রঃ জনকন্ঠ

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com