জোকস্

প্রকাশের সময় : 2020-01-29 14:53:44 | প্রকাশক : Administration

জোকস্

সংগ্রহেঃ  রোমেল হোসাইন

 

মরা পাখি কিভাবে আকাশে উড়েঃ

পল্টুর মামা দেশের সেরা তিন জন শিকারির মধ্যে নিজেকে একজন মনে করেন। একদিন পল্টুকে নিয়ে শিকারে গেলেন। একটি পাখি উড়ে যেতে দেখে পল্টু বলল-

পল্টুঃ মামা, ওই পাখিটি শিকার করো।

মামা তার সব প্রতিভা কাজে লাগিয়ে পাখিটার দিকে গুলি মারলো। কিন্তু পাখিটা নীরবে উড়ে গেল। এটা দেখে পল্টু বলল-

পল্টুঃ মামা, তোমার মতো শিকারি এটা মারতে পারলে না?

মামাঃ আমি এখনো বুঝতে পারছি না, মরা পাখি কিভাবে আকাশে উড়ে!

শ্রেণিকক্ষে শিক্ষককে লজ্জা দিলো ছাত্রঃ

এক ছেলে খুব পড়া চুরি করত। ক্লাস টিচার একদিন অতিষ্ট হয়ে তাকে বলল-

শিক্ষকঃ দাঁড়াও, তোমার বয়স কত?

ছাত্রঃ ১২ বছর।

শিক্ষকঃ তোমার লজ্জা করা উচিত। কারণ এ বয়সে নেপোলিয়ন অত্যন্ত কৃতিত্বের সঙ্গে ক্লাস ফোর পাস করেছেন।

ছাত্রঃ তাহলে আপনারও তো লজ্জা করা উচিত যে, আপনার মতো বয়সে নেপোলিয়ন সম্রাট হয়ে ছিলেন।

ডাক্তারের কাছে সব খুলে বলুনঃ

একদিন এক রোগী ডাক্তারের কাছে গিয়ে বললেন-

রোগীঃ ডাক্তার সাব, আমার একটা অদ্ভুত রোগ হয়েছে।

ডাক্তারঃ কী রকম?

রোগীঃ আমি অল্পতেই রেগে যাই।

গালাগালি করি।

ডাক্তারঃ ব্যাপারটা একটু খুলে বলুন তো।

রোগীঃ শালার ব্যাটা, কয়বার খুলে বলব!

১০ সেকেন্ডের কানপরাঃ

একদিন রাস্তা দিয়া হাটতেছিলাম হঠাৎ আমার এক মেয়ে ক্লাসমেটের সাথে দেখা।

ও আমারে জিজ্ঞেস করলো কেমন আছোস?

আমি খালি কইলাম ভাল আছি।

ওর সাথে বড়জোর ১০ সেকেন্ডের মত দাঁড়িয়ে কথা বলেছি।

এটা আবার পাশের বাড়ীর তুহিনের আম্মু দেখেছে তুহিনের আম্মু হাবিবের আম্মুরে বলছে..

ঐ বাড়ির মিনা ভাবির বরকে দেখলাম রাস্তায় দাঁড়াইয়া এক মাইয়ার লগে ১ ঘন্টা যাবত প্রেমালাপ করছে।

হাবিবের আম্মু আবার তানহার আম্মুকে বলছে হুনছোনি মিনা ভাবির বর নাকি কোন মাইয়ার হাত ধইরা রাস্তায় মধ্যে গুতাগুতি করছে। 

তানহার আম্মু আবার আমার বউরে বলছে তুমার বর কোন মাইয়ারে নিয়া নাকি ঘুরতে গেছে।

বউ আবার আমারে কইতাছে এসব কি হুনলাম তুমি নাকি আবার বিয়া করছো? সংসারে অশান্তি শুরু...। মনডায় কই এক  গ্লাস পানিতে ডুইবা মইরা যাই।

নতুন বছরে বেতন বাড়াতে হবেঃ

অফিস সহকারী তার ম্যানেজারকে বললেন-

অফিস সহকারীঃ আমি এতদিন ধরে তিনজন লোকের কাজ একাই করেছি। তাই নতুন বছরে আমার বেতন বাড়াতে হবে।

ম্যানেজারঃ বেতন এখন বাড়ানো অসম্ভব। কিন্তু তুমি বাকি দু’জনের নাম বল, তাদের এখনই বরখাস্ত করব।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com