‘রাতের পদ্মাসেতু ভিউ’

প্রকাশের সময় : 2020-02-12 13:05:01 | প্রকাশক : Administration
‘রাতের পদ্মাসেতু ভিউ’

সরদার মোঃ বাহারঃ পদ্মার যে সৌন্দর্য্য সবচেয়ে মন কাড়বে তার নাম ‘নাইট ভিউ পদ্মা’। ছলাৎ ছলাৎ ঢেউয়ে নীলাভ আলো, রঙ্গিন বাতি, সোনালী আলোর স্থির হয়ে থাকা, সাদা পিলারে নীল আলোর ছটা, হাজার লাইটপোস্টের সারি থেকে বেরিয়ে আসা রূপালী আলো সব মিলিয়ে সে এক অদ্ভুত মোহনীয়তা। ঠিক এরকমই হবে পদ্মা সেতুর রাতের অন্ধকারে থেকে দেখা যাবে এই রূপ। পদ্মাসেতু প্রকল্প এলাকার সার্ভিস এরিয়াগুলোতে নাইট ভিউ সম্পর্কে এমনটাই বলা হচ্ছে। কেমন হতে পারে নাইট ভিউ তার ত্রিমাত্রিক বা থ্রিডি ছবিও তৈরি হয়েছে। একই সঙ্গে দিনের আলোতে পদ্মার সৌন্দর্য্য কেমন হতে পারে সেটিও তুলে ধরা হয়েছে থ্রী-ডি ভিউতে।

পদ্মা সেতুর বাস্তবায়নের প্রধান কর্তা সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের কবিমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে এ বিষয়ে একটু বেশিই রোমান্টিক হতে দেখা যায়। তার ভাষায়, ভরা পূর্ণিমায় যখন মানুষ পদ্মাসেতু দিয়ে পার হবে তখন মোহনীয় সৌন্দর্য্য তাকে গিলে খাবে। ব্রিজের অদ্ভুত রূপে তাকে মনে করিয়ে দেবে গান আর কবিতা । ‘মানুষ গুনগুনিয়ে গান গাইতে গাইতে পদ্মাসেতু পার হবে।’ সার্ভিস এরিয়া-৩ এর অফিস কক্ষে নজরে পরে এই তিন-মাত্রিক ‘নাইট ভিউ’। ছবিতেই যা এত সুন্দর! তার বাস্তব রূপে অবগহন না করলেই ‘মিস’। তবে ‘মিস’ হবে না। ‘মিসিং ফোল্ড’ পেরিয়ে পদ্মাসেতু এখন বাস্তবে দৃশ্যমান। পিলার গড়ে উঠতে আর খুব বাকি নেই। পিলার শেষে স্প্যান বসালেই হয়ে যাবে পদ্মাসেতু। তখন সেই সেতুর দিনে হবে এক রূপ, রাতের রূপ থাকবে ভিন্ন।

দিনে যারা এই সেতু পাড়ি দেবেন তারাই যখন রাতে যাবেন, মনে করবেন ভিন্ন এক সেতু দিয়ে যাচ্ছেন। ঢেউয়ে প্রমত্তা আর ইলিশের জন্য বিখ্যাত পদ্মা তখন আরও বিখ্যাত হবে তার রাতের দৃশ্যের কারণে। প্রকৃতি আর কৃত্রিমতার মিশেলে পদ্মাসেতু হবে আগামীর বাংলাদেশ উন্নয়নের সবচেয়ে অগ্রসর ধাপ ও উদাহরণ, এমনটা এখন দেখার অপেক্ষা মাত্র।

এখানে প্রকৃতির সৌর্ন্দয্য হবে চাঁদমাখা রূপ, ছলাৎ ছলাৎ ঢেউ আর কৃত্রিমতা হবে ঢেউয়ের ভাঁজে রঙ্গীন নীল আর সোনালী আলোর খেলা। প্রকৃতি আর কৃত্রিমতার মিশেলে যে আলোখেলা হবে তা দেখা যাবে ১৫ কিলোমিটার দূর থেকেও। ৬ কিলোমিটারের বেশি লম্বা পদ্মাসেতু থেকে নদীতে নীল আলো পড়বে। আলো ঝলমলে রূপ ১৫ কিলোমিটার দূর থেকে দৃশ্যমান হবে। পদ্মাসেতুর পাড়ে হংকং সাংহাইয়ের মত যেসব আধুনিক নগর গড়ে তোলা হবে সেসব নগরের প্রতিটি জানালা খুললে দেখা যাবে পদ্মার আলো ঝলমলে রূপ।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com