মানুষকে বাঁচাতে সাহায্যের হাত বাড়াল ওরাংওটাং!

প্রকাশের সময় : 2020-09-03 17:05:18 | প্রকাশক : Administration
মানুষকে বাঁচাতে সাহায্যের হাত বাড়াল ওরাংওটাং!

সিমেক ডেস্কঃ বনাঞ্চলের কর্দমাক্ত নদী। সেই নদীতে বুক পর্যন্ত পানিতে নিমজ্জিত এক ব্যক্তি। তার সামনে ঝোঁপে দাঁড়িয়ে একটি ওরাংওটাং। ওই ব্যক্তি নদীতে আটকা পড়েছেন ভেবে তাকে বাঁচানোর জন্য সামনে ঝুঁকে হাত বাঁড়িয়ে দিয়েছে সেই ওরাংওটাং। এমনি একটি অবিশ্বাস্য মুহূর্তের ছবি ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে।

মানুষকে বাঁচাতে বন্যপ্রাণি ওরাংওটাংয়ের এভাবে এগিয়ে আসার ঘটনাটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বোর্নিও দ্বীপের একটি সংরক্ষিত বনাঞ্চলের। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল বলছে, বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে যাওয়া অনীল প্রভাকর নামে এক ব্যক্তির ক্যামেরায় ধরা পড়েছে এই হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া মুহূর্তটি।

এমন দারুণ মুহূর্তটি প্রত্যক্ষ করার পর অনীল প্রভাকর খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, ওই ব্যক্তি বোর্নিও ওরাংওটাং সারভাইভাল ফাউন্ডেশনের কর্মী। ওই ফাউন্ডেশনেরই নির্দেশনায় নদীর একটি অংশ পরিচ্ছন্ন করতে পানিতে নেমেছিলেন তিনি।

প্রভাকরের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে- ওরাংওটাং সাহায্যের হাত বাড়ালেও ওই ব্যক্তি সাড়া দেননি। সেটি বন্যপ্রাণি ছিল বিধায় অচেনা আচরণের ঝুঁকি বিবেচনায় তিনি সাড়া না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

প্রভাকর বলেন, নদীতে নেমে আবর্জনা পরিষ্কার করার সময় তাকে দেখছিল ওরাংওটাংটি। তিনি যখন উঠতে যাবেন, তার আগে দেখা যায়, সেই বন্যপ্রাণিটি তার খুব কাছে এসে একেবারে ঝুঁকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। তবে এতে সাড়া না দিয়ে ওই বনকর্মী অন্য প্রান্ত দিয়ে ডাঙ্গায় উঠে যান।

ছবিটি ফেসবুকে পোস্ট হতেই অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে । অনেকে পোস্টটি শেয়ার দিয়ে ওরাংওটাংয়ের সাহায্য করার মানসিকতার প্রশংসা করেন । অনেকে বলেন, সাহায্য করার মানসিকতার দিক থেকে অন্তত মানুষের চেয়ে অগ্রগামী ওরাংওটাং । - সুত্রঃ অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com