জাতীয় সংসদ ভবন

প্রকাশের সময় : 2020-09-17 17:30:23 | প্রকাশক : Administration
জাতীয় সংসদ ভবন

সিমেক ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবন মানিক মিয়া এ্যাভিনিউর উত্তর পাশে শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত। সমগ্র শেরেবাংলা নগরের প্রায় এক পঞ্চমাংশ স্থান সংসদ এলাকা। ১০৮ একর জমির উপর বিশাল খোলা চত্বরের বুকে সম্পুর্ণ কংক্রিটের ঢালাইয়ে বৃত্তাকারে নির্মিত নয়তলা এই ভবনের চারিদিকে রয়েছে কৃত্রিম লেক। লেকের স্বচ্ছ পানিতে সুউচ্চ ভবনের ছবি প্রতিবিম্বিত হয়। বিখ্যাত মার্কিন স্থপতি লুই আই ক্যানের অমর কির্তী এই সংসদ ভবন। এটি আধুনিক স্থাপত্য নক্সার এক অপূর্ব নিদর্শন।

এই ভবনের পরিকল্পনা গৃহীত হয় ১৯৫৯ সালে। এর মূল নক্সা অনুমোদিত হয় ১৯৬২ সালে এবং ১৯৬৪ সালে পাকিস্তানের দ্বিতীয় রাজধানীতে (বর্তমান শেরেবাংলানগর) এর নির্মাণ কাজ শরু হয়। প্রায় আশি শতাংশ কাজ শেষ হওয়ার পর ১৯৬৯ সালে আইয়ুব বিরোধী আন্দোলন শুরু হলে এর নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর নাখাল পাড়ায় প্রাদেশিক পরিষদ ভবনে (বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়) সংসদের কাজ চালু হয় এবং জাতীয় সংসদ ভবনের অবশিষ্ট কাজ পুনরায় শুরু হয়।

১৯৮২ সনে সংসদ ভবনের কাজ শেষ হয়। এই ভবনটি পৃথক নয়টি ব্লকে বিভক্ত একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ কমপ্লেক্স। মাঝখানের কেন্দ্রীয় ব্লকের নীচের তলায় ৩৫৪ আসনের প্রধান হল রুম। সেখানে সংসদের অধিবেশন বসে। এর চারপাশে চারটি অফিস ব্লক। মূল ভবনের কোথাও কোন কলাম নেই। কাঠামোর ভারসাম্য ঠিক রাখতে ত্রিকোণাকৃতির ফাঁকা অংশে কলাম রয়েছে। এই ফাঁকা অংশ দিয়ে মূল ভবনে সহজে আলো বাতাস প্রবেশ করতে পারে। সংসদ ভবনের বাইরের বৃত্তাকার লেক পেরিয়ে বিশাল খোলা চত্বর। দক্ষিণাংশের খোলা প্রান্তরে সকাল সন্ধ্যা শত শত নারীপুরুষের পদচারণায় মুখরিত থাকে। এটি অবসর বিনোদনের এক মনোরম স্থান।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com