হলুদ কেন এবং কতটুকু খাবেন

প্রকাশের সময় : 2020-10-14 15:54:28 | প্রকাশক : Administration
হলুদ কেন এবং কতটুকু খাবেন

সিমেক ডেস্কঃ হলুদ রান্নায় ব্যবহৃত হয়। বর্তমানে আপনি চা, কফি, প্রোটিন বার ও সাপ্লিমেন্টের উপাদান হিসেবেও হলুদের ব্যবহার লক্ষ্য করে থাকবেন। দিনদিন হলুদের জনপ্রিয়তা বাড়ার কারণ- গবেষণায় হলুদের ইতিবাচক প্রভাব।

গবেষণা বলছে, হলুদ ব্যবহারে প্রদাহরোধী উপকার পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু শরীর থেকে প্রদাহ বা ব্যথা কমাতে কতটুকু হলুদ ব্যবহার করা উচিত? বিশেষজ্ঞদের মতে, হলুদ ব্যবহারের সর্বোত্তম ও নিরাপদ পরিমাণ নির্ভর করে কিছু বিষয়ের ওপর।

রান্নায় হলুদের ব্যবহারে উল্লেখযোগ্য ব্যথা প্রশমনের মতো উপকার পাবেন না। আমেরিকার আর্থ্রাইটিস ফাউন্ডেশন প্রদাহ বা ব্যথা কমাতে প্রতিদিন তিনটি করে ৪০০ থেকে ৬০০ মিলিগ্রাম টারমারিক ক্যাপসুল অথবা অর্ধ থেকে তিন গ্রাম হলুদের গুঁড়া ব্যবহার করতে পরামর্শ দিচ্ছে। জার্নাল অব মেডিসিনাল ফুডে প্রকাশিত গবেষণা মতে, আর্থ্রাইটিস বা বাতের রোগীরা প্রতিদিন এক

গ্রাম কারকামিন খেয়ে উপকার পেতে পারেন।

তবে স্মরণে রাখা ভালো যে, শরীর হলুদ ভালোভাবে শোষণ করতে পারে না। এ কারণে হলুদের সঙ্গে গোল মরিচ ও অলিভ অয়েল ব্যবহার করা যেতে পারে। সাধারণত রান্নায় যে পরিমাণ হলুদ ব্যবহার করা হয় তা নিরাপদ ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে না। কিন্তু অত্যাধিক পরিমাণে হলুদ খেলে পেটে অস্বস্তিকর অনুভূতি, মাথাঘোরা, বমিভাব ও ডায়রিয়া হতে পারে।

কিছু রক্ত তরলকারী ওষুধ রয়েছে। ভুলেও এই ওষুধের সঙ্গে হলুদ খাবেন না। তাহলে রক্তক্ষরণের ঝুঁকি বেড়ে যাবে। তবে প্রদাহজনিত সমস্যা থাকলে প্রতিদিনকার রেসিপিতে এখন থেকে হলুদের গুঁড়া আরেকটু বাড়িয়ে নিতে পারেন। - সূত্রঃ অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com