জোকস্

প্রকাশের সময় : 2020-11-11 16:11:47 | প্রকাশক : Administration
জোকস্

জোকস্

সংগ্রহেঃ ফেরদৌস আলম

চুমু এর ডাক্তারঃ

 

রুবেল বউকে নিয়ে ট্রেনে করে বেড়াতে যাচ্ছিল।

রুবেলঃ মাধূরি, মাধূরি, আমার বুকের বাম পাশটাতে ভিশন ব্যথা পাচ্ছি আমার খুব খারপ লাগছে।

তখন মাধূরি তার বুকের বাম পাশটায় চুমু দিল, আর সাথে সাথে ব্যথা ভালো হয়ে গেল।

একটু পর আবার রুবেল বলছে, মাধূরি, আমার কপালট এবং হাতটা কেমন জানি করছে। খুব অসহ্য লাগছে। এবারও পূর্বের মত কপালে ও হাতে চুমু দিতেই ভালো হয়ে গেল!

এই কান্ড দেখে, ট্রেনের ফ্লোরে শুয়ে থাকা এক বুড়ো বলল, মা, তুমি তো দেখছি চুমুর ডাক্তার! চুমু দিলেই সব ভালো হয়ে যায়।

আমার তো ডায়রিয়ার সমস্যা! তুমি একটা চুমু দিয়ে দাওনা! তাহলে ডায়রিয়াটা ভালো হয়ে যাবে!!

 

চার বন্ধুর ডিনার কান্ডঃ

 

বল্টু, পল্টু, আবুল, মফিজ ৪জন ৫স্টার হেটেলে ডিনার করছে। ডিনার শেষে ৪ জনই বিল দেওয়া নিয়ে তর্ক করছে। এ বলে আমি বিল দেব, ও বলে আমি বিল দিব!

হোটেল ম্যানেজার এই কান্ড দেখে মনে মনে হাসছে আর বলছে, পৃথিবীতে এখনো এরকম বন্ধুত্ব দেখা যায়? বিশ্বাস হয়না!

এক পর্যায়ে ৪ জন মিলে সিদ্ধান্ত নিল যে, একটি দৌঁড় প্রতিযোগিতা হবে। প্রতিযোগিতায় যে জয়ী হবে, সে বিল পরিশোধ করবে।

হেটেল ম্যানেজার রাজী হয়ে হুইসেল বাজলো।

৪ জন একসাথে দৌঁড় দিল। সেই যে তারা দৌঁড় দিল আর ফিরে আসেনি।

ম্যানেজার আজও চেয়ে থাকে সেই গেটের দিকে কখন যেন ওই ৪ জন বিল নিয়ে ফিরে আসে।

 

ছেলের মাতৃভক্তিঃ

 

ক্লাসে স্বর্গ ও নরক নিয়ে ব্যাখ্যা করার পর শিক্ষক ছাত্রদের প্রশ্ন করলেনঃ

শিক্ষকঃ তোমাদের মধ্যে কে কে স্বর্গে যেতে চাও?

সবাই হাত তুলল গৌতম ছাড়া।

শিক্ষক এবার গৌতমকে জিজ্ঞাসা করল-

শিক্ষকঃ কী ব্যাপার, তুমি স্বর্গে যেতে চাও না?

গৌতমঃ না স্যার, মা আজ তাড়াতাড়ি বাড়ি যেতে বলেছে।

শ্লোগানের ব্যতিক্রমঃ

 

এক নেতা গ্রেফতার হওয়ার পর তার কর্মীরা মিছিল করছে-

কর্মীঃ শামীম ভাইয়ের কিছু হলে, জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে।

শামীমঃ দেখিস, আমার ঘরে আবার...

কর্মীঃ শামীম ভাইয়ের কিছু হলে, জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে।

শামীমঃ দেখিস, আমার ঘরে আবার আগুন দিস না।

ডাক্তারের চেম্বারে প্লাস চিহ্নঃ

দীর্ঘদিনের পরিচিত এক রোগী তার ডাক্তারকে প্রশ্ন করলেন-

রোগীঃ আচ্ছা ডাক্তার, দুনিয়াতে এত সাইন থাকতে আপনারা ‘প্লাস’ কেন বেছে নিলেন?

ডাক্তারঃ দেখুন, রোগী মরুক আর বাঁচুক, ডাক্তার তো সব সময় ‘প্লাস’ই থাকে কি না ?

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com