বিড়াল পেল সম্পত্তির ভাগ!

প্রকাশের সময় : 2021-01-07 11:50:36 | প্রকাশক : Administration
বিড়াল পেল সম্পত্তির ভাগ!

সিমেক ডেস্কঃ সন্তান বা নিকট আত্মীয়রা উত্তরাধিকার হিসেবে সম্পত্তির ভাগ পেয়ে থাকেন। কিন্তু ফরাসি এক ব্যক্তি তার সম্পত্তির (অর্থের) ভাগ বিড়ালকেও দিয়েছেন। সম্প্রতি তিনি উইল করে কিছু বিড়ালকে তার অর্থের ভাগ দেন।

এই বিড়ালগুলো রাশিয়ার স্টেট হার্মিটেজ মিউজিয়ামের বেজমেন্টে বাস করে। সেন্ট পিটার্সবার্গের এ জাদুঘরের বেজমেন্টে প্রায় ৫০টি বিড়ালের বাস। বিড়ালগুলোর পরিচর্যা করেন জাদুঘরের কর্মচারী ও স্বেচ্ছাসেবীরা। বিড়ালের পরিচর্যার জন্য বিভিন্ন সময়ে অনুদান পেয়ে থাকে জাদুঘর কর্তৃপক্ষ। তবে বিড়ালগুলোর জন্য এই প্রথম কেউ জমি দান করলেন। কিন্তু তিনি তার নাম প্রকাশ না করতে জাদুঘর কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ বিসয়ে জাদুঘরের সাধারণ পরিচালক মিখাইল পিওট্রভস্কি বলেন, ফরাসি ওই নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। তিনি তার উইলে সম্পত্তির কিছু অংশ বিড়ালগুলোর নামে লিখে দিয়েছেন। এটা তিনি বিড়ালগুলোর প্রতি ভালোবাসা থেকেই করেছেন।

পরিচালক জানান, ‘এই সম্পত্তি টাকার অঙ্ক খুব বেশি না হলেও, উইলে সম্পত্তির ভাগ দেওয়া তো একটি অসাধারণ ব্যাপার। তিনি উইল লেখার পর তার আইনজীবী আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছেন। প্রক্রিয়াটি কিছুটা জটিল হলেও এটি অনন্য উদাহরণ নয় কি?’

ফরাসি এ দাতার সম্পত্তির অর্থ দিয়ে বিড়ালগুলোর বসবাসের স্থানের উন্নয়নের জন্য জাদুঘরটির বেজমেন্টের সংস্কার করা হবে বলে জানান তিনি।

সম্রাজ্ঞী এলিজাবেথের শাসনকাল থেকেই জায়গাটিতে বিড়ালদের বসবাস। ১৭৪১ - ১৭৬১ সাল পর্যন্ত রাশিয়ার শাসক ছিলেন সম্রাজ্ঞী এলিজাবেথ। অর্থাৎ আড়াইশো বছরেরও বেশি সময় ধরে জায়গাটি বিড়ালদের আবাসস্থল। জাদুঘরটির প্রতিষ্ঠাতা রাশিয়ার আরেক সম্রাজ্ঞী ক্যাথেরিন দ্য গ্রেট। তিনি বিড়ালগুলোকে জাদুঘরের আর্ট গ্যালারির অভিভাবকের মর্যাদা দিয়েছিলেন। - সুত্রঃ অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com