নদীর পানিতে তরল ‘সোনার স্রোত

প্রকাশের সময় : 2021-03-03 13:11:09 | প্রকাশক : Administration
নদীর পানিতে তরল ‘সোনার স্রোত

আমাজনের গভীর বনাঞ্চলের একটি অংশ থেকে ঠিকরে বের হচ্ছে সোনার আলোর ছটা। এমনই চিত্র উঠে এসেছে আমাজনের দক্ষিণ আমেরিকার পেরুর অংশে। আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের (আইএসএস) তোলা ওই রহস্যজনক ছবিতে দেখা যাচ্ছে, আমাজনের বড় বড় নদীগুলোর পানিতে বয়ে যাচ্ছে তরল সোনার স্রোত। জলের ধারার মতো। নদীগুলি যেন হয়ে উঠেছে 'তরল সোনার নদী'!

ভূপৃষ্ঠের ৩৭০ কিলোমিটার উপরে পৃথিবীর কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করতে করতে সেই তাক লাগানো ছবি প্রকাশিত হয়েছে নাসার 'আর্থ অবজারভেটরি'র ওয়েবসাইটে।

এর রহস্য নিয়ে নাসার আর্থ অবজারভেটরির তরফে টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জাস্টিন উইলকিনসন জানান, ওই পানির উপরে পড়ে সূর্যের আলো প্রতিফলিত হওয়ার জন্যই মহাকাশ স্টেশন থেকে তোলা ছবিতে মনে হচ্ছে যেন তরল সোনার স্রোত বয়ে যাচ্ছে পেরুর আমাজন বনাঞ্চলের ওই অংশের নদীগুলোতে। এদিকে উইলকিনসন জানান, পেরুর মাদ্রে দ্য দিয়স প্রদেশের ওই এলাকায় রয়েছে প্রচুর সোনার খনি। সেই খনিগুলো থেকে চোরাগোপ্তা সোনা তোলার কাজে জড়িত অন্তত ৩০ হাজার মানুষ। নদীর জলে থিতিয়ে পড়া জিনিসপত্রের মধ্যে খুঁজে খুঁজে স্বর্ণকণিকাগুলোকে আলাদা করতে গিয়ে পারদ ব্যবহার করছেন সোনা-চক্রীরা। তার ফলে নদীর পানিগুলো বিষিয়ে যাচ্ছে। যা স্থানীয় মানুষের পক্ষে হয়ে উঠছে রীতিমতো বিপজ্জনক। - সূত্র: অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com