১০ হাজার কিমিঃ রাস্তা ডবল লেন হচ্ছে

প্রকাশের সময় : 2018-07-25 18:41:29 | প্রকাশক : Administrator

মশিউর রহমান খানঃ গ্রামীণ অর্থনৈতিক কর্মকান্ড সম্প্রসারণের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে ১০ হাজার কিলোমিটার রাস্তাকে সিঙ্গেল লেন থেকে ডবল লেনে রূপান্তর করতে চায় স্থানীয় সরকার। পূর্বের ১২ ফুট চওড়া সিঙ্গেল লেন রাস্তার পরিবর্তে ১৮ ফুট চওড়া করে এসব রাস্তা নির্মাণ করা হবে। তবে এসব রাস্তার নক্সায় কিছুটা পরিবর্তন করা হবে।

দুর্ঘটনা কমাতে ও যান চলাচল নির্বিঘœ করতে এসব রাস্তায় ঝুঁকিপূর্ণ ও অপ্রয়োজনীয় বাঁক কমানো হবে। প্রতি কিলোমিটার রাস্তা তৈরিতে ব্যয় করা হবে এক কোটি টাকা। প্রাথমিকভাবে রাজধানী ও আশপাশের জেলা ও উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোকে প্রশস্ত করা হবে। পরবর্তীতে বাস্তব অবস্থা বিবেচনায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সড়কগুলোকে ডবল লেনে রূপান্তর করা হবে।

এসব রাস্তায় ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশি পরিমাণ যানবাহন চলাফেরা করে। এ ছাড়া এসব যানের ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশি ওজন নিয়ে চলাফেরা করায় সরু রাস্তা অতি কম সময়ের মধ্যেই ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ফলে এলজিইডি কর্তৃপক্ষ এসব সড়ক সময়ের আগেই নষ্ট হয়ে যাওয়ায় প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ না থাকায় বারবার সংস্কার করাও কঠিন হয়ে পরে। যার ফলে অনেক রাস্তাই ভাঙ্গাচোরা অবস্থায় নষ্ট হয়ে পরে থাকতে দেখা যায়।

গ্রামীণ সড়ক নির্মাণের বিদ্যমান ডিজাইন স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী বর্তমানে ১২ ফুট চওড়া পিচঢালা সড়ক নির্মাণ করেছে এলজিইডি। রাস্তা সংলগ্ন এলাকার মানুষের দান করা জমিতে স্থানীয় এলাকায় যোগাযোগ রক্ষায় এসব সড়ক নির্মাণ হয়। এসব এলাকায় দ্রুত নগরায়ণের ফলে বিভিন্ন কল কারখানা তৈরি হওয়ায় যানবাহন ও চলাচলের চাপ অধিক হারে বেড়ে যাওয়ায় এমন অনেক রাস্তার আয়ুষ্কাল হারিয়ে অনেকটা চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এতে গ্রামীণ অর্থনৈতিক কর্মকান্ড বাধাগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি প্রতিনিয়তই বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা যার ফলে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন উক্ত এলাকায় চলাচলকারী ও সাধারণ জনগণ। এসব বিবেচনায় নিয়ে এলজিইডি নিজেদের আওতাধীন ১০ হাজার কিলোমিটার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সিঙ্গেল লেন থেকে ডবল লেনে রূপান্তরের উদ্যোগ নিয়েছে।

গ্রামীণ অর্থনৈতিক কার্যক্রম সম্প্রসারণের ফলে সরকার রাস্তা নির্মাণে ২০০৫ সালে ডিজাইন গাইডলাইন পরিবর্তনের প্রয়োজন হওয়ায় ২০১৪ সালে একনেকের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামীণ সড়কের ডিজাইন পুনর্গঠনের পরামর্শ দেন। এসব রাস্তা তৈরি করা গেলে নগর সংশ্লি−ষ্ট এলাকায় চলাচলকারী নাগরিকগণ ও যাতায়াতকারী যানবাহন সহজে চলাচল করতে সক্ষম হবে। গ্রামীণ অর্থনীতিতে যার প্রভাব পড়বে। ফলে অর্থনীতি বিকাশে ও নাগরিকদের জীবনমান উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com