জোকস্

প্রকাশের সময় : 2018-08-18 17:44:40 | প্রকাশক : Admin

জোকস্

টেকনোলজিঃ

হাসপাতালে নার্স : অভিনন্দন,

আপনার ঘরে ছেলে হয়েছে।

বল্টু : আরে বাবা ! কী টেকনোলজির যুগ! বিবি হাসপাতালে; আর ছেলে হলো ঘরে !!

 

ধান্দাবাজীঃ

 

একদিন এক চীনা লোক, এক অষ্ট্রেলিয়ান লোক, আর আমাদের বল্টু জাহাজে চড়ে যাচ্ছিল। হঠাৎ চীনা লোকটি একটি র-ঢ়যড়হব পানিতে ফেলে দিলেন। এই দেখে বল্টু বলল - "হায়রে দাদা এত দামি ফোনটা পানিতে ফেলে দিলেন..?"

চীনা : ধুট, হেইটা কোনো ব্যাপার হইলো, হেইগুলোটো হামাদের ডেশে বহুট আশে।

একটু পরে অষ্ট্রেলিয়ান লোকটি কয়েকটি টাকার বান্ডেল পানিতে ফেলল। এই দেখে বল্টু বলল..." হায়রে দাদা এতগুলো টাকা জলে ফেলে দিলেন..?"

অষ্ট্রেলিয়ান : এঠা কোন ব্যাপার হোলো, এগুলোটো হামার দেশে বহুত আছে।

সব শেষে বল্টু পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাচ্চাকে টেনে পানিতে ফেলে দিলেন।

এই দেখে লোক দুটি বলল..."দাদা হেকি করলেন বাচ্চাটাকে পানিতে ফেলে ডিলেন..?"

বল্টু : ধুর, এটা কোনো ব্যাপার হলো, এগুলোতো আমাদের দেশে অনেক আছে।

এর পর জাহাজ থেকে নেমে বল্টু নদীর পাড় দিয়ে হাঁটছে। এমন সময় জল থেকে বাচ্চাটি উঠে এসে বলল, বাবা টাকা গুলো পেয়েছি, আর ফোনটা ভারীতো; তাই ডুবে গেছে।

 

খাবারের পিস্ঃ

 

বল্টু একটা পিজ্জা অর্ডার দিয়েছেন।

বেয়ারা : স্যার, এটাকে আট পিস্ করব,

না চার পিস্..?

বল্টু : চারই করে দে, আটটা বড্ড বেশি হয়ে যাবে, খেতে পারব না...!

 

বল্টুর ক্যারিয়ারঃ

 

বাবা : এই বল্টু এদিকে আয়....

বল্টু : আসছি।

বাবা : অবেলায় কোথায় যাচ্ছিস?

বল্টু : সাইকেলে করে একটু ঘুরে আসি বাবা।

বাবা: সারাদিন সাইকেল সাইকেল আর সাইকেল। ক্যারিয়ার নিয়ে কিছু ভেবেছিস?

বল্টু: ইয়ে একবার ভেবেছিলাম। দোকানেও গিয়েছিলাম। কিন্তু যা দাম!

বাবা : কি যা তা বলছিস?

বল্টু: সত্যি বলছি বাবা, সাইকেলের পেছনে ক্যারিয়ার লাগালে কেমন ক্ষেত ক্ষেত লাগে। তাছাড়া এ যুগে ক্যারিয়ার ওয়ালা সাইকেল চলে না।

বাবা : জ্ঞান হারিয়ে ফেললেন !!!

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com