সৎ ব্যবসা করে পুণ্য অর্জন করা যায়

প্রকাশের সময় : 2018-09-13 11:08:03 | প্রকাশক : Admin

আমিন মুনশিঃ ব্যবসা-বাণিজ্য, ক্রয়-বিক্রয় শুধু বৈষয়িক মুনাফা লাভের সুযোগই নয়, বরং এক মহান ইবাদতও। একজন ব্যবসায়ী রমজানে পণ্যে ভেজাল না দিয়ে, ব্যবসার ক্ষেত্রে মিথ্যা না বলে, ওজনে কম না দিয়ে এবং নিত্যপণ্যের দাম অবৈধভাবে না বাড়িয়ে সৎ ব্যবসায়ী হয়ে ব্যবসাকে ইবাদতে রূপান্তরের প্রশিক্ষণ নিতে পারেন রমজানে। একান্ত আলাপকালে এসব কথা বলেন ধর্মীয় লেখক ও গাজীপুর বাইতুশ শফিক মসজিদের খতিব মাওলানা যুবায়ের আহমাদ। মাওলানা যুবায়ের আহমাদ বলেন, সৌদি আরব, কাতারসহ আরব দেশগুলো তো আছেই; এমনকি আমেরিকাতেও বিজ্ঞাপন দিয়ে রমজান এলে নিত্যপণ্যের মূল্যে ছাড় দেয়া হয়। কিন্তু আমাদের দেশে হয় এর বিপরীত। সংযমের মাস রমজানে লাগামহীন হয়ে পড়ে নিত্যপণ্যের বাজার। বেশি মুনাফার আশায় মজুদদারীর মাধ্যমে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করবে সে তার দুনিয়া ও আখিরাত উভয়টিকেই ক্ষতিগ্রস্থ করবে। আল্লাহ তায়ালা তার প্রতি ক্ষুব্ধ হয়ে  তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেন, যে ব্যক্তি চল্লিশ দিন খাদ্য মজুদ রাখল সে আল্লাহ থেকে নিঃসম্পর্ক হয়ে গেল, আল্লাহও নিঃসম্পর্র্ক হয়ে গেলেন তার থেকে। (মুসনাদে আহমাদ: ৮/৪৮১)

তিনি বলেন, সিন্ডিকেট করে নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে জনগণকে কষ্ট দিয়ে ‘বড়লোক’ হয়ে রমজানে দান খয়রাতের অভিনয় রমজানের সঙ্গে উপহাস করা ছাড়া কিছুই নয়। ওই ব্যক্তি মুনাফাখোরির মাধ্যমে অর্জিত সব সম্পত্তি দান করে দিলেও আল্লাহর দরবারে তা গ্রহণযোগ্য হবে না। নবী কারিম (সাঃ) বলেছেন, যে ব্যক্তি (কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে দাম বাড়ানোর জন্য) ৪০ দিন পর্যন্ত কোনো জিনিস গুদামজাত করে রাখবে, তার এত মারাত্মক গুনাহ হবে যে এই সমুদয় সম্পদ দান করে দিলেও তার গুনাহ মাফের জন্য যথেষ্ট হবে না। (মিশকাত: ২৭৭২)।

উপার্জন হারাম হওয়ার কারণে তার নামাজ, রোজা, হজ্ব কবুল হবে না। আবার তার এ সম্পদের দান-সদকাও কবুল হবে না। রাসুলে কারিম (সাঃ) বলেন, যে ব্যক্তি অবৈধভাবে সম্পদ সঞ্চয় করে এরপর তা দান করবে, সে এই দানের জন্য কোনো প্রতিদান পাবে না এবং তাতে পাপ ভোগ করতে হবে। (ইবনে হিব্বান: ৮/১১)।

পক্ষান্তরে হারাম পথ অবলম্বন না করে হালাল উপার্জন থেকে অল্প দান করলেও আল্লাহর কাছে এর মর্যাদা অনেক বেশি। রাসুলে কারিম (সাঃ) বলেন, যে ব্যক্তি হালাল উপার্জন থেকে একটি খেজুর পরিমাণ দান করবে (আল্লাহর কাছে তা এতই প্রিয় হবে যে) আল্লাহ একে তার কুদরতি ডান হাতে কবুল করবেন। এরপর একে দাতার জন্য তোমাদের কারো অশ্বশাবককে প্রতিপালন করার মতো করবেন এবং প্রতিপালন করতে করতে পাহাড় পরিমাণ কড় করবেন (পাহাড় পরিমাণ দানের সওয়াব দান করবেন)। (বোখারি: ২/১০৮)

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com