এডিবি দিচ্ছে ৭০ হাজার কোটি হবে দ্বিতীয় পদ্মা সেতু নির্মাণ

প্রকাশের সময় : 2018-10-24 16:54:45 | প্রকাশক : Admin
এডিবি দিচ্ছে ৭০ হাজার কোটি  হবে দ্বিতীয় পদ্মা সেতু নির্মাণ

এম শাহজাহানঃ আগামী পাঁচ বছরে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক-এডিবির কাছ থেকে সাড়ে আট বিলিয়ন ডলার বা ৭০ হাজার কোটি টাকার ঋণ সহায়তা পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। কর্মসংস্থান বাড়াতে অবকাঠামো খাতে এই অর্থ ব্যয় করবে সরকার। এছাড়া দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষতি এবং সামাজিক সুরক্ষার মতো বড় প্রকল্পগুলোতে এডিবির অর্থ ব্যয় করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় দ্বিতীয় পদ্মা সেতু প্রকল্পতে অর্থায়ন করার আশ্বাস দেয়া হয়েছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে এবার এই সেতু নির্মাণের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে এ তথ্য। রূপকল্প-২১ এবং দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে নিয়ে যেতে হলে স্বল্পসুদের এই ঋণ আমাদের প্রয়োজন। এই বাস্তবতায় এই অর্থ অবকাঠামো উন্নয়নে বড় ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

জানা গেছে, দেশকে মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে  নিয়ে যাওয়া এবং জীবনমান উন্নয়নে দেশে ব্যাপক কর্মসংস্থান বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ কারণে বেসরকারী খাতের বিনিয়োগ উৎসাহিত করতে সরকারী বিনিয়োগ বাড়ানো হচ্ছে। গত কয়েক বছরে সরকারী বিনিয়োগে এডিবি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছে। স্বল্পোন্নত থেকে উন্নত দেশের কাতারে সামিল হওয়া, মাথাপিছু আয় বাড়া, ঋণ পরিশোধে সক্ষমতা অর্জন এবং এমডিজি অর্জনে সফলতা আসায় এডিবি বাংলাদেশে ঋণ বিতরণ কার্যক্রম বাড়ানোর পদক্ষেপ নিয়েছে। দেশের অবকাঠামো খাত নিয়ে সংস্থাটির আগ্রহ সবচেয়ে বেশি।

এ প্রসঙ্গে এডিবির বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মাহবুব আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে এডিবির কার্যক্রম বাড়ানো হচ্ছে। আগামী পাঁচ বছরে এডিবির কাছ থেকে সাড়ে আট বিলিয়ন ডলার অর্থ পাওয়া যাবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর ঋণ ব্যবহারের সক্ষমতা বাড়ায় খুশি সংস্থাটি। তবে সরকারী খাতের ন্যায় বেসরকারী খাত ঋণ ব্যবহারে পারদর্শি হতে পারছে না। এ কারণে দেশের বেসরকারী খাতেও ঋণ ব্যবহারের সক্ষমতা বাড়াতে সংস্থাটির যথেষ্ট আগ্রহ রয়েছে।

জানা গেছে, নিজস্ব অর্থায়নে মাওয়া-জাজিরা পয়েন্টে প্রথম পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে যাওয়ায় এবার এডিবি দ্বিতীয় পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এডিবি বলছে, প্রথম পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হওয়ার আগেই দ্বিতীয় পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজ শুরু করলে নির্মাণ খরচ অনেক কমে আসবে। এখন যেসব যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হচ্ছে সেইসব যন্ত্রপাতি এই সেতুতেও ব্যবহার করা যাবে। এ কারণে দেরি না করে শীঘ্রই দ্বিতীয় পদ্মা সেতুর কাজ শুরু করা হলে তাতে অর্থায়ন করবে এডিবি।

জানা গেছে, আগামী বছর বাংলাদেশকে দেয়া ঋণ সহায়তার অংশ হিসেবে এডিবি দুই বিলিয়ন ডলার অর্থ ছাড় করবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশের সঙ্গে সম্প্রতি এক বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, এডিবির অর্থ ছাড়ের গতি বেশ ভাল। গত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে তারা এক দশমিক দুই বিলিয়ন ডলার অর্থ ছাড় করেছে। চলতি বছর আশা করছি, সেটা দুই বিলিয়নে চলে যাবে। এছাড়া সংস্থাটি বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের সহায়তায় বাংলাদেশ সরকারকে ২০ কোটি ডলার অনুদান দেয়ার প্রতিশ্র“তি দিয়েছে। ইতোমধ্যে ১০ কোটি ডলার ছাড় করেছে।

জানা গেছে, আগামী পাঁচ বছরের জন্য (২০১৬-২০২০) এডিবি যে ‘কান্ট্রি পার্টনারশিপ স্ট্র্যাটেজি’ গ্রহণ করেছে সেখানে বাংলাদেশকে প্রায় সাড়ে ৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে, যা এ যাবতকালের মধ্যে সর্বোচ্চ। এডিবিতে ইমেজ এতটাই ভাল যে, সংস্থাটি এখন বাংলাদেশকে সর্বোচ্চ পরিমাণ সহায়তা দিতে চায়।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com