একই সঙ্গে ৬ বিদ্যুত কেন্দ্র উদ্বোধন

প্রকাশের সময় : 2019-02-28 15:14:19 | প্রকাশক : Admin
একই সঙ্গে ৬ বিদ্যুত কেন্দ্র উদ্বোধন

সিমেক ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই সঙ্গে এক হাজার ৫৭ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতার ছয়টি নতুন বিদ্যুত কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন করা কেন্দ্রগুলো হচ্ছে ভোলা ২২৫ মেগাওয়াট সিম্পল সাইকেল পাওয়ার প্ল্যান্ট (সিসিপিপি), সিরাজগঞ্জ ৪০০ মেগাওয়াটের মধ্যে ২৮২ এর ইউনিট-৪ সিসিপিপি, খুলনা রূপসা-১০০ মেগাওয়াট, চাঁদপুরে ২০০ মেগাওয়াট, আশুগঞ্জ -১৫০ মেগাওয়াট এবং চট্টগ্রামের জুলদা ১০০ মেগাওয়াটের তৃতীয় ইউনিট।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, খুঁজে খুঁজে মানুষের ঘরে বিদ্যুত সংযোগ দেয়া হচ্ছে। প্রতি ঘরে আলো জ্বালানোই তার সরকারের উদ্দেশ্য। তিনি বলেন, আমরা মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি আর বিদ্যুতের উৎপাদনের মাধ্যমে প্রতিটি ঘরে আলো জ্বালাব এটি আমাদের লক্ষ্য। বর্তমানে দেশের ৯৩ ভাগ মানুষ বিদ্যুত পাচ্ছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা জানেন এখন আর বিদ্যুতের জন্য ছোটাছুটি করতে হয় না। এখন আলোর পসরা নিয়ে আপনাদের ঘরে ঘরে যাচ্ছে। কোথায় বিদ্যুত দরকার- এভাবে খুঁজে খুঁজে আমরা মানুষের চাহিদা পূরণ করার উদ্যোগ নিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, চাহিদার সঙ্গে তাল রেখে আমরা বিদ্যুতের উৎপাদনও বাড়াচ্ছি। আমাদের লক্ষ্য সারাদেশে আমরা বিদ্যুত ছড়িয়ে দেব। সেই লক্ষ্য অর্জনের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ২০ হাজার ৮৫৪ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন ক্ষমতা অর্জন করেছে বাংলাদেশ। গত দশ বছরে ১০০ নতুন বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। ফলে বাংলাদেশ এখন বিদ্যুত ঘাটতির দেশ থেকে বিদ্যুত উদ্বৃত্তর দেশে পরিণত হয়েছি।

ভোলায় ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্র চালু হওয়ায় দ্বীপবাসীর মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে। সাধারণ মানুষসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ মনে করছে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুত সরবরাহের ফলে এখানে বিভিন্ন ধরনের শিল্প কারখানা গড়ে উঠবে। ভোলার ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মোফাজ্জল হোসেন সরকার জানান, বিদ্যুত খাতে বর্তমান সরকার অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুত পৌঁছে দেয়ার যে প্রতিশ্র“তি সরকারের রয়েছে এই প্লান্ট স্থাপনের মধ্য দিয়ে তার বাস্তবায়ন আরও একধাপ এগিয়ে গেল।

কয়েক মাসের মধ্যেই ভোলা জেলায় শতভাগ বিদ্যুত চাহিদা পূরণ হবে প্রত্যাশা ব্যক্ত করে ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানান, ১০ বছর আগে যেখানে ভোলার বিদ্যুত চাহিদার ১৫ ভাগ পূরণ হতো। এখন সেখানে ৯৫ ভাগ চাহিদা পূরণ হচ্ছে। এ ছাড়া ভোলায় এ ধরনের আরও ৩টি বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মাণাধীন রয়েছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে এগুলো চালু হবে। আর এতে করে প্রতিটি গ্রাম আলোকিত হবে। গ্রামগুলো শহরে পরিণত হবে।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com