ঘামাচি দূর করবেন? উপায় তো ঘরেই আছে!

প্রকাশের সময় : 2019-06-26 20:29:11 | প্রকাশক : Administration
ঘামাচি দূর করবেন? উপায় তো ঘরেই আছে!

সিমেক ডেস্কঃ চাঁদি ফাটা রোদ আর প্রখর তাপে প্রাণ ওষ্ঠাগত হওয়ার সময় চলছে। এই সময় ত্বকের সমস্যাও বেড়ে যায়। সারা দিন ঘেমে নেয়ে থাকা শরীরে ঘামাচির প্রকোপ বেড়ে যায়। আর এই ঘামাচির জেরে লেগেই থাকে চুলকানির সমস্যা।  একেক জনের শরীরে ঘামাচির প্রভাব একেক রকমভাবে হয়ে থাকে। র‌্যাশ, প্রদাহ সব মিলিয়ে ত্বকের ক্ষতি তো হয়ই, সঙ্গে অস্বস্তি ও শারীরিক কষ্টও বাড়ে। বাজারে চলতি কিছু পাউডার বা সাবান এ সমস্যা দূর করতে পারে। কিন্তু তাতে নানা রাসায়নিক মেশানো থাকে যার ফলে ত্বকের সমস্যা হতে পারে। ঘামাচির বাড়াবাড়ি রকমের সমস্যা থাকলে তাই অবশ্যই ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। কিছু ঘরোয়া উপায়েও সমস্যার সমাধান হতে পারে। যেমন- শুকনো কাপড়ে কয়েক টুকরো বরফ নিয়ে ১০-১৫ মিনিট ধরে ঘামাচির ওপর লাগান। দিনে ৩-৪ বার এভাবে করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।  চার টেবিল চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে পরিমাণ মতো গোলাপ জল মিশিয়ে ঘামাচির ওপর লাগান। কিছু ক্ষণ রেখে শুকিয়ে নিন। এর পর ধুয়ে ফেলুন।  উপকার পাবেন। এক কাপ ঠান্ডা জলে এক চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। এর পর পরিষ্কার কাপড় ডুবিয়ে ঘামাচির ওপর ১০ মিনিট পর্যন্ত রেখে আলতো করে মুছতে থাকুন। ঘামাচির মোক্ষম নিরাময় হল অ্যালোভেরা। ঘামাচির ওপর শুধু অ্যালোভেরার রস বা হলুদের সঙ্গে অ্যালোভেরার রস মিশিয়ে লাগান। কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন।  নিম পাতা ঘামাচির উপশম হিসেবে ভালো কাজ করে। নিম পাতার রসের সঙ্গে গোলাপ জল মিশিয়ে ঘামাচির ওপর লাগিয়ে তার ওপর নিমের ডাল বোলালেও আরাম পাওয়া যায়। - সূত্রঃ অনলাইন 

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com