টাকা আমাদের মনুষ্যত্বকে কিনে নিয়েছে; শিরিনকে পারেনি

প্রকাশের সময় : 2019-06-26 20:32:55 | প্রকাশক : Administration
টাকা আমাদের মনুষ্যত্বকে কিনে নিয়েছে; শিরিনকে পারেনি

সালাম শিরিনঃ মেয়েটির নাম সানজিন শিরিন। তাঁর কোলে নব জাতক যমজ শিশু। তিনি একজন সিনিয়র নার্স। কাজ করেন মৌলভীবাজারের কমল গঞ্জের ক্যামেলিয়া ডানকান ফাউন্ডেশন হাসপাতালে। তার জন্ম সিলেটের হবিগঞ্জ জেলায়। বাংলাদেশে তাঁর মত হাজার হাজার নার্স কাজ করেন। মানুষের সেবা করেন। কিন্তু তিনি তাঁদের চেয়ে আলাদা।

তিনি যে হাসপাতালটিতে কাজ করেন সেখানে ১৭টি চা বাগানের শ্রমিকদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। গরীব শ্রমিকদের অন্য হাসপাতালের ব্যয় বহন করা সম্ভব না। হাসপাতালের উপরের একটি কক্ষে থাকেন শিরিন। এখানেই তার জীবন। গরীব রোগীর খাবার না থাকলে তিনি তার খাবার থেকে তাঁদের খাবারও দেন।

আমাদের দেশের প্রাইভেট হাসপাতাল কিংবা ক্লিনিকে যেখানে এখন প্রায় ৬০% মায়ের শিশু জন্ম দেন সিজারিয়ান অপারেশন করে সেখানে শিরিন বিনা টাকায় গরীব মায়েদের নরমাল ডেলিভারী করান ১০০%। এক রুগীর স্বামী খুশী হয়ে তাকে ২০/- বকশিস দিতে চেয়েছিলেন। তিনি হেসে তা ফিরিয়ে দেন। ভোর রাত কিংবা ঝড় বৃষ্টির রাত হোক, শিরিন কখনও ক্লান্ত হন না এ কাজে। তিনি নব জাতকের সাথে সেলফি তোলে তার Facebook wall এ Post দিয়ে হাসেন আর মনে মনে বলেন,”আমি গরীবের ডাক্তার। আমাকে মায়ের পেট কেটে সন্তান ভূমিষ্ট করাতে হয় না। আমি পারি সৃষ্টিকর্তার কৃপায়।”

এ পর্যন্ত ৪ বছরে শিরিন ৪২৮টি নরমাল ডেলিভারী নিজে করিয়েছেন। জটিল সমস্যা নিয়ে আসা মায়েদেরও তিনি অসীম সাহসিকতার সাথে নরমাল ডেলিভারী করিয়েছেন। সব মায়েরা সুস্থ আছেন। শিরিন বলেন, ”সিজারিয়ান শিশু ও মায়ের ভবিষ্যতে সমস্যা হয়। কিন্তু নরমাল ডেলিভারী করাতে পারলে  ২ ঘন্টা পর মা স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারেন। শিশুর ব্রেইন ভাল হয়।“

সারাদেশের সানজিন শিরিনদের খুঁজে বের করে রাষ্ট্রের উচিত পুরস্কৃত করা যেন আমরা তাঁদের মত হই। টাকা আমাদের মনুষ্যত্বকে কিনে নিয়েছে। শিরিনকে পারেনি। শিরিন অনেক গরীব ঘরে জন্মেছিল কিন্তু তার অন্তর আমার চেয়ে অনেক ধনী। সে গরীবের ডাক্তার আর বড় লোকের কাছে সাধারন নার্স। আসুন যেনতেন খবর এবং ছবি Facebook এ শেয়ার না করে শিরিনের কাজ সবাইকে জানাই।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com