কর্নফুলী টানেলে গাড়ি চলবে ২০২২ সালেই

প্রকাশের সময় : 2019-06-26 20:36:20 | প্রকাশক : Administration
কর্নফুলী টানেলে গাড়ি চলবে ২০২২ সালেই

জাবের হোসেনঃ চট্টগ্রামের কর্নফুলী নদীর তলদেশে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল দিয়ে নির্ধারিত মেয়াদে অর্থাৎ ২০২২ সালেই চলবে যানবাহন। এরই মধ্যে টানেলের ৩৬ শতাংশ নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। পুরো টানেল প্রকল্প এলাকায় চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ।

এক নগরী দুই শহর। চীনের সাংহাইয়ের আদলে বন্দরনগরী চট্টগ্রামকে গড়ে তুলতে বঙ্গবন্ধু টানেলটি নির্মিত হচ্ছে। কর্নফুলী মোহনার পাশঘেঁষে নদীর ১৫০ ফুট নিচ দিয়ে যাবে টানেলটি। ৩.৪ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দুইটি টিউবে যানবাহন চলাচলে থাকবে চারলেনের সড়ক। টানেলের পূর্ব ও পশ্চিম পাশে নির্মিত হবে ৫.৩৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক ও ৭২৭ মিটার ওভারব্রিজ।

প্রকল্প সংশ্লি−ষ্টরা বলছেন, দেশি-বিদেশি বিনিয়োগে কক্সবাজারের মাতারবাড়িতে গভীর সমুদ্রবন্দর, কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুতকেন্দ্র, এলএনজি স্টেশনসহ জ্বালানিভিত্তিক বিপুল সংখ্যক শিল্প-কারখানার কাজ চলছে। এসব উন্নয়ন প্রকল্পের যোগসূত্র হয়ে বঙ্গবন্ধু টানেলটি গোটা দেশের সঙ্গে যোগাযোগে মূল ভুমিকা রাখবে।

টানেলটির কারণেই চট্টগ্রামকে ঘিরে গড়ে উঠবে ইকোনমিক হাব। পর্যটন শিল্পের বিকাশসহ দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থার ক্ষেত্রে ঘটবে   বৈপ্ল−বিক পরির্বতন। চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেন, সমুদ্রতীরবর্তী এলাকায় ধীরে ধীরে অনেক ইন্ড্রাস্ট্রি গড়ে উঠবে। টানেলের নির্মাণকাজ শুরুর পর থেকেই নদীর ওপারে বিনিয়োগ শুরু করেছে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। দক্ষিণতীরে দুইটি ইকোনমিক জোনসহ টানেলকে ঘিরে চলছে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ। যা দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রাকে আরো বেগবান করবে বলে আশা ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের।

বিজিএমইএ’র সাবেক সহ সভাপতি নাসির উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘অর্থনৈতিক বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানে সার্বিকভাবে নতুন মাত্রা যোগ হবে বলে আমি মনে করি। চট্টগ্রাম চেম্বারের সভাপতি মাহবুবল আলম বলেন, যে গাড়িগুলো চট্টগ্রাম শহরের ওপর দিয়ে যায়, সেগুলো সরাসরি টানেলের মাধ্যমে কক্সবাজার হয়ে টেকনাফ পর্যন্ত যেতে পারবে।

চীনের আর্থিক সহায়তায় নয় হাজার ৮৮০ কোটি টাকার এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না কমিউনিকেশন কন্সট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড। তারাও আশাবাদী, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২২ সালেই গাড়ি চলবে বঙ্গবন্ধু টানেলে।

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com