জোকস্

প্রকাশের সময় : 2018-05-11 15:26:26 | প্রকাশক : Admin

জোকস্

গুরা গুরা

এক ছাত্র আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে। তাকে তার শিক্ষক জিজ্ঞাসা করছেন-

শিক্ষকঃ বল তো বাবা, ঐড়ৎংব মানে কী?

ছাত্রঃ গুরা।

শিক্ষকঃ গুরা!! আচ্ছা, ঞঁৎহ মানে কী?

ছাত্রঃ গুরা।

শিক্ষকঃ (কিছুটা রেগে বললো) তাহলে চড়ফিবৎ মানে কী?

ছাত্রঃ গুরা।

শিক্ষকঃ পুরো রেগে গিয়ে বললো সব কিছুই কি ‘গুরা’ নাকি?

ছাত্রঃ না স্যার, একটা লাফাইন্না গুরা, একটা মুরাইন্না গুরা, আর শেষেরটা গুরা গুরা...!!!

 

ডাক্তার ও হাবলুঃ

হাবলুঃ "ডাক্তার, আমার পেটে গ্যাসের অনেক সমস্যা। কিন্তু ভালো দিক এই যে আমার গ্যাসের গন্ধও হয় না, আওয়াজও হয় না। এখানে বসে আমি ১৫-২০ বার গ্যাস ছেড়েছি; কিন্তু কেউ টেরই পায় নি"।

ডাক্তারঃ "এই ঔষধটা খান, আর এক সপ্তাহ পরে আসবেন" এক সপ্তাহ পর....

হাবলুঃ "এ কি ঔষধ দিলেন ডাক্তার সাহেব, আমার গ্যাসে এখনো আওয়াজ নেই; কিন্তু জঘন্য গন্ধ বের হয়!"

ডাক্তারঃ "গুড, আপনার নাক ঠিক হয়ে গেছে, এখন আপনার কানের চিকিৎসা করতে হবে...!!

 

ভিক্ষুকের পাওনা টাকাঃ

ভিক্ষুকঃ স্যার, আগে আপনি আমাকে প্রতিদিন ১০ টাকা দিতেন। তারপর প্রতিদিন ৫ টাকা দিতেন। আর আজ ক’দিন হলো প্রতিদিন ১ টাকা দিচ্ছেন।

লোকঃ আগে আমি অবিবাহিত ছিলাম। তারপর আমার বিয়ে হলো। আর এখন আমার একটা বাচ্চা হয়েছে।

ভিক্ষুকঃ ছি, আমার পাওনা টাকায় সংসার চালাচ্ছেন স্যার...!!!!!

 

 

আমি তোমাকে চিনিঃ

লালু বিদেশ থেকে ফেরত এসেছে-

চাচাঃ লালু, বিদেশে অনেক দিন থাকলা। ইংরেজি তো জানো মনে হয়।

লালুঃ তা তো অবশ্যই!

চাচাঃ তাহলে বল তো, ‘আমি তোমাকে চিনি’ ইংরেজি কী?

লালুঃ এটা তো সহজ, আই সুগার ইউ!

চাচাঃ বাহ্ ভালো! এবার বল তো, ‘ভালোবাসা’ ইংরেজি কী?

লালুঃ ভাব নিয়ে! গুড হাউজ!

 

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সরদার মোঃ শাহীন,
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ রফিকুল ইসলাম সুজন,
বার্তা সম্পাদকঃ ফোয়ারা ইয়াছমিন,
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ আবু মুসা,
সহঃ সম্পাদকঃ মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিসঃ ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২,
উত্তরা, ঢাকা,
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com