এশিয়ার দেশ ব্রুনাই

প্রকাশের সময় : 2021-08-12 14:32:27 | প্রকাশক : Administration
এশিয়ার দেশ ব্রুনাই

জেসিউর রহমান শামীম: এশিয়া মহাদেশের একটি দেশ ব্রুনাই সর্ম্পকে অনেকেরই অজানা।  ব্রুনাই এর সরকারি নাম নেশন অফ ব্রুনাই। দ্যা অ্যাবোড অফ পিস। এটি এশিয়া মহাদেশের দক্ষিণ পূর্ব অংশে  বোর্নিও দ্বীপের উত্তর উপকূলে অবস্থিত। দেশটির উত্তরে দক্ষিন চীন সাগর  এবং বাকি সব দিকে মালয়েশিয়া অবস্থিত। বর্তমান বিশ্বের অন্যতম ধনী রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত এই দেশ তেল ও গ্যাস সম্পদ সমৃদ্ধ। বাদশাহ শাসিত এই  দেশটির প্রধান সুলতান  হাসান আল-বলকিয়াহ। দেশটির জনগণ প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই বিপুল ভর্তুকি পান এবং জনগণকে কর দিতে হয় না । তবে প্রচুর সম্পদ থাকার পরেও রাজধানীর বাইরে খুব কমই উন্নয়নের ছোঁয়া পড়েছে। সম্প্রতি তেল-গ্যাসের বাইরে অর্থনীতির অন্য ক্ষেত্রগুলোতে সফল হতে চেষ্টা করছে ব্রুনাই। পর্যটনের দিকেও বেশ মনোযোগী হচ্ছে  দেশটি । 

ষোড়শ শতাব্দীতে ব্রুনাই সালতানা ছিল একটি শক্তিশালি রাজ্য। কিন্তু ওই শতাব্দীর শেষ দিকে জলদস্যুদের আক্রমন এবং অভ্যন্তরীণ বিশৃঙ্খলার কারণে দেশটির শক্তি কমে আসতে থাকে। ১৮৮৮ সালে এক চুক্তির ফলে ব্রুনাই বৃটিশের একটি শাসিত রাজ্যে পরিণত হয়। এরপর ১৯৭৯ সালের ৭ ই জানুয়ারি ব্রুনাই সুলতান ও বৃটিশ সরকারের মধ্যে এক চুক্তির ফলে ১৯৮৪ সালের ১লা জানুয়ারী ব্রুনাই স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রে পরিণত হয় এবং এ বছর-ই ব্রুনাই জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ করে।

৫ হাজার ৭ শত ৬৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের ব্রুনাইয়ের মোট জনসংখ্যা প্রায় ৪ লাখ ৪২ হাজার। আয়তনের দিক দিয়ে এটি এশিয়ার চতুর্থ ক্ষুদ্রতম দেশ। ব্রুনাইয়ের রাষ্ট্রীয় ভাষা হল স্ট্যার্ন্ডাড মালয়। এই ভাষাটি দেশটির অর্ধেক লোকের মাতৃভাষা। অন্যদিকে ইংরেজি মাতৃভাষার লোকসংখ্যাও আছে হাজার দশেক।  ইসলাম দেশটির প্রধান ধর্ম। দেশের ৮০ শতাংশ মানুষ মুসলিম। বাকিদের মধ্যে ৯ শতাংশ খৃষ্ঠান, ৮ শতাংশ বৌদ্ধ এবং তিন শতাংশ মানুষ অন্যান্য ধর্মাবলম্বী। ব্রুনাইয়ের রাজধানী বন্দর সেরি বেগাওয়ান শহরটি দেশটির সবচেয়ে ছোট ও সবচেয়ে ঘনবসতি পুর্ন ব্রুনাই মোয়ারা জেলায় অবস্থিত। ব্রুনাই সরকারের  প্রায় সমস্ত মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও কর্তৃপক্ষের কার্যালয় এই শহরে অবস্থিত। এটি দেশটির প্রধান অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক কেন্দ্র।  বর্তমানে বিশ্বের  সবচেয়ে সুন্দর শহর গুলির মধ্যে একটি হচ্ছে বন্দর সেরি বেগাওয়ান। কারুকার্যপূর্ণ ও দৃষ্টিনন্দন দালান আছে শহরটিতে যা বিশ্বের অন্যান্য শহর গুলোতে কম দেখতে পাওয়া যায়।

শহরের প্রতিটি রাজপ্রাসাদ এবং মসজিদ সকলের চোখ ধাঁদিয়ে দেয়। দেখলে মনে হবে স্বর্ণ খচিত। এসবের কারণে প্রতি বছর অসংখ্য পর্যটক ভিড় জমায় এখানে। দেশটিতে বিষবীয় জলবায়ু বিদ্যমান হওয়ার ফলে আবহাওয়া উষ্ণ ও আদ্র। বার্ষিক গড় তাপমাত্রা ২৩ থেকে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এর ভেতরে থাকে। দেশটির রাজধানীতে বিশ্বের সর্ববৃহৎ সাজানো গোছানো ঐতহ্যিবাহী নদী গ্রাম আছে। এই নদী গ্রামে স্কুল মসজিদ, দমকল, বাজার, ক্লিনিক, দোকানসহ সবকিছু আছে।

গ্রামটিতে প্রায় ত্রিশ হাজারের বেশি মানুষ বাস করে। ব্রুনাইয়ে রয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম আবাসিক প্রাসাদ। ব্রুনাই নদীর তীরে অবস্থিত ইস্তানা নুরুল ঈমান হল সুলতানের আনুষ্ঠানিক  আবাস। প্রাসাদটিতে রয়েছে ১৭ শত ৮৮ টি কক্ষ ২৫৭ টি বাথরুম একটি মসজিদ ১১০ টি গাড়ির জন্য জায়গা সহ একটি গ্যারেজ, পাঁচটি সুইমিংপুল সহ আরো অনেক কিছু।

১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত দক্ষিণ-পুর্ব এশিয়ার সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিনোদন পার্ক জেরুডং এ দেশে অবস্থিত। এটি নির্মানে প্রায় ১ বিলিয়ন ডলার খরচ হয়েছিল। আয়তনে ছোট এবং ব্যাপক উন্নয়ন কার্যক্রম চলা সত্বেও ব্রুনাই তার রেইন ফরেস্টের ৭০ শতাংশ গাছ রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছে। এসব রেইন ফরেস্টে বিশ্বের কিছু দুর্লভ প্রাণী পাওয়া যায়।

সন্ধ্যা মেঘ যুক্ত চিতা বাঘ, উড়ন্ত টিকটিকি, লবণাক্ত জলের কুমির ইত্যাদি দেশেটির অন্যতম উল্লেখযোগ্য বন্য প্রাণী। ব্রুনাই হলো একটি নিখুত রাজতন্ত্র। যেখানে সুলতানের সিদ্ধান্তই শেষ সিদ্ধান্ত। সুলতান হলেন জাতির পরম রাজা। তার হাতে পুরো দেশের নির্বাহী ক্ষমতা রয়েছে এবং তিনি রাজ্যেরও প্রধান। ব্রুনাইয়ের বর্তমান রাজা ১৯৬৭ সালের ৫ ই অক্টোবর সিংহাসনে আরোহণ করেন। পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি বৃটেনের  দ্বিতীয় রানী এলিজাবেথের পরেই বিশ্বের  দ্বিতীয় দীর্ঘতম সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা রাজা। দেশটির শিক্ষা ব্যবস্থা অত্যন্ত উন্নত। দেশের প্রাপ্তবয়স্ক প্রায় ৯৭ দশমিক ২ শতাংশ মানুষ শিক্ষিত। ব্রুনাই এর সর্বাধিক জনপ্রিয় খেলা অ্যাসোসিয়েশন ফুটবল। ব্রুনাইয়ের জাতীয় ফুটবল দল ১৯৬৯ সালে ফিফায় যোগদান করে। তবে এখনো কোনো উল্লেখযোগ্য সাফল্য পায়নি।

ব্রুনাইয়ের ক্ষুদ্র কিন্তু ধনী অর্থনীতি বিদেশি এবং দেশীয় উদ্যোক্তা, সরকারি নিয়ন্ত্রন ও কল্যাণমূলক পদক্ষেপ এবং গ্রাম ঐতিহ্যের সমন্বয়ে গঠিত।  অপরিশোধিত তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদন থেকে জিডিপির প্রায় ৯০ শতাংশ আসে। প্রতিদিন দেশটিতে প্রায় এক লাখ ৬৭ হাজার ব্যারেল তেল উৎপাদন হয়। যা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার চতুর্থ বৃহত্তম। একই সাথে দেশটি প্রায় প্রতিদিন ২৫.৩ মিলিয়ন ঘনমিটার  তরল প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদন করে যা ব্রুনাইকে বিশ্বের নবম বৃহত্তম গ্যাস রপ্তানিকারক দেশ হিসাবে পরিণত করেছ। ব্রুনাইয়ের সরকারি মুদ্রা হলো ব্রুনাই ডলার।

১ ব্রুনাই ডলার সমান প্রায় বাংলাদেশি ৬৩ টাকা ২০ পয়সা। দেশেটির জি ডি পি প্রায় ১৩.৪৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং মাথাপিছু আয় প্রায় ৩১ হাজার ৮৭ মার্কিন ডলার (২০১৯ সাল)। ব্রুনাইয়ে কল করতে হলে নাম্বারের আগে ডায়েল করতে হবে + ৬৭৩।

 

সম্পাদক ও প্রকাশক: সরদার মোঃ শাহীন
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম সুজন
বার্তা সম্পাদক: ফোয়ারা ইয়াছমিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আবু মুসা
সহ: সম্পাদক: মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিস: ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
বার্তা বিভাগ: বাড়ি # ৩৩, রোড # ১৫, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন: ০১৮৯৬০৫৭৯৯৯
Email: simecnews@gmail.com