দুই হাত এক পা ছাড়াই বিশ্বজয়ের সাহস

প্রকাশের সময় : 2022-01-12 16:29:27 | প্রকাশক : Administration
দুই হাত এক পা ছাড়াই বিশ্বজয়ের সাহস

ইতালির পেরুজ্জিয়া শহরের কিশোরী ফ্রাঞ্চেসকা যেদিন বলেছিল, ‘‘আমি অ্যাক্রোবেটিক পোল ড্যান্সার হবো’’, মা ভ্যালেরিয়ার বিশ্বাসই হচ্ছিল না। যার দুই হাত নেই, পা আছে একটা- সেই মেয়ে চায় এত কঠিন কাজে নামতে? ফ্রাঞ্চেসকার জীবনের গল্পের কিছু অংশ নিচে তুলে ধরা হলো।

হাত নেই, তাতে কী!

ফ্রাঞ্চেসকার জন্মই হয়েছে দুই হাত আর এক পা ছাড়া। পায়ের একটা অংশ না থাকায় নকল পা লাগানো হয়েছে। কিন্তু নকল কবজি লাগানোর পরও তা ব্যবহার করতে রাজি হয়নি ফ্রাঞ্চেসকা। নকল হাত নাকি তার ভালো লাগে না।

অন্যরকম সূর্যোদয়: সেই সকালে কী যে হয়েছিল ফ্রাঞ্চেসকার এখনো বুঝতে পারেন না মা ভ্যালেরিনা। ঘুম থেকে উঠে এসেই বলে, ‘‘মা, আমি অ্যাক্রোবেটিক পোল ড্যান্সার হবো।’’ মেয়ের মুখে এমন কথা শুনে অবাক হলেও বিরক্ত হননি। বরং দুই হাতের কবজি আর একটা পা না থাকার পরও মেয়ে যে এমন একটা স্বপ্ন দেখতে পারছে তা দেখে খুশিই হয়েছিলেন মা।

হ্যারি পটার-ভক্ত ফ্রাঞ্চেসকা: আর দশটা সাধারণ কিশোরীর মতো ফ্রাঞ্চেসকারও ম্যাকডোনাল্ডসের খাবার ভালো লাগে, ভালো লাগে পপ গান শুনতে। ও দাঁতে ব্রেস পরে, গলায় পরে কালো নেকলেস। আর হ্যারি পটারের এমন ভক্ত যে কল্পনায় হ্যারি পটারের মতো অনেক কিছুই   করে যায় সব সময়। তবে জীবন চলায় জাদুর ওপর কখনোই ভরসা রাখেনি। পেরুজ্জিয়া শহরের মেয়েটি জানে, সফল হতে হলে নিরলস পরিশ্রমে আস্থা রাখতে হবে তাকে।

কঠোর অনুশীলন: ফ্রাঞ্চেসকা সাধারণ কোনো অ্যাক্রোবেটিক পোল ড্যান্সার হতে চাইলে এতদিনে হয়ত হারিয়ে যেতো। কিন্তু মধ্য ইতালির পেরুজ্জিয়া শহরের মেয়েটি যত শেখে, শেখার আগ্রহ আরও বাড়ে তার। নিজের ঘরে তো অনুশীলন করেই, স্থানীয় জিমে গিয়েও প্রশিক্ষণ নেয় কোচ এলেনা ইম্ব্রোনিয়োর কাছে।

অনন্য ফ্রাঞ্চেসকা: দুই হাত নেই। একটা পা না থাকায় কাজ চালাতে হয় নকল পা দিয়ে। তারপরও অ্যাক্রোবেটিক পোল ড্যান্সার হওয়ার স্বপ্নকে অজেয় মনে করেনি ফ্রাঞ্চেসকা। তাই মাত্র ১৫ বছর বয়সেই সে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। হাত বা পা না থাকলেও যে অ্যাক্রোবেটিক পোল ড্যান্সার হওয়া যায়- তা এখনো কম মানুষই ভাবতে পারে। তাই প্রতিযোগিতায় ফ্রাঞ্চেসকার কোনো প্রতিদ্বন্দী ছিল না। - সূত্র: অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশক: সরদার মোঃ শাহীন
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম সুজন
বার্তা সম্পাদক: ফোয়ারা ইয়াছমিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আবু মুসা
সহ: সম্পাদক: মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিস: ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
বার্তা বিভাগ: বাড়ি # ৩৩, রোড # ১৫, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com