সবুজ রঙের এ কেমন আকাশ!

প্রকাশের সময় : 2022-10-13 15:59:34 | প্রকাশক : Administration
সবুজ রঙের এ কেমন আকাশ!

নানা কিসিমের ভিডিও দেখা যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। কোনো কোনো ভিডিওতে ধরা পড়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপূর্ব মহিমা। এমনই একটি ভিডিও সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেট দুনিয়ায়। সেখানে দেখা যাচ্ছে অরোরার বিস্ফোরণ! অরোরার কেতাবি বাংলা নাম ‘মেরুজ্যোতি’।

তাতেও বোঝা গেল না ব্যাপারটা? তাহলে পুরো ব্যাপারটা খোলাসা করে বলা যাক। ঘটনা কয়েক দিন আগের। ভিনসেন্ট লেডভিনা নামের এক মার্কিন ব্যক্তি ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কার আকাশ ছেয়ে গেছে অপূর্ব সুন্দর সবুজ রঙে। ভিডিওর ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘আলাস্কায় অরোরা বিস্ফোরণ! ফিরে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে পারছি না।’ এটিই মূলত অরোরা। সবুজ রঙের বিস্ফোরণ।

ভিনসেন্ট লেডভিনা তাঁর ইনস্টাগ্রামের পরিচিতিতে লিখেছেন, তিনি একজন বিজ্ঞানী। নিজেকে ‘অরোরা মানব’ বলে ডাকেন। তিনি মহাকাশ আবহাওয়া বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন এবং নিজেকে পরিচয় দেন ‘সবুজ আকাশ খোঁজার বিশেষজ্ঞ’ হিসেবে। ভিডিওটির সঙ্গে ভিনসেন্ট কিছু লিখিত বার্তা জুড়ে দিয়েছেন। সেখানে লেখা ছিল, ‘আমি যখন বলি যে অরোরা বিস্ফোরিত হতে পারে, তখন আমি এটা বোঝাতে চেয়েছি যে সর্বত্র সবুজ আলো দেখা যাবে। এ এক অপূর্ব দৃশ্য।’

ভিনসেন্ট আরও লিখেছেন, ‘আরোরা এত শক্তিশালী ছিল যে আমার ক্যামেরাকে অতিমাত্রায় উদ্ভাসিত করেছিল। এটি ক্যামেরা ছাড়া খালি চোখেও সবুজ ছিল। বিস্ফোরণটিকে আসলে একধরনের ঝড় বলা হয়। ঝড়ের সময় অরোরা অল্প সময়ের জন্য উজ্জ্বল হয় এবং বিষুবীয় অঞ্চলের দিকে প্রসারিত হয়। এর তিনটি পর্যায় রয়েছে সম্প্রসারণ, ভেঙে পড়া ও পুনরুদ্ধার।

ভিডিওটি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করার পর এ পর্যন্ত ৩২ লাখেরও বেশিবার ভিউ হয়েছে এবং ভিডিওটিতে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ লাইক পড়েছে। অসংখ্য মানুষ মন্তব্য করেছেন সেখানে।

একজন ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, ‘একদিন নিজের চোখে অরোরা দেখতে পাব, এটা আমার স্বপ্ন। আচ্ছা একটি প্রশ্ন, এই অরোরাগুলো কি ভিডিওতে যেমন দেখা যায় তেমনই উজ্জ্বল, নাকি তারার মতো, যেখানে আলো দূষণ ছাড়ায়, আপনি তাদের দেখতে পাবেন?’ - সূত্র: অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশক: সরদার মোঃ শাহীন
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম সুজন
বার্তা সম্পাদক: ফোয়ারা ইয়াছমিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আবু মুসা
সহ: সম্পাদক: মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিস: ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
বার্তা বিভাগ: বাড়ি # ৩৩, রোড # ১৫, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com