৩৩ বছর পর নেপচুনের বলয়ের ছবি

প্রকাশের সময় : 2022-10-26 15:48:44 | প্রকাশক : Administration
৩৩ বছর পর নেপচুনের বলয়ের ছবি

মার্কিন মহাকাশ সংস্থা ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (ঘঅঝঅ) এর জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ ৩০ বছরেরও বেশি সময় পর নেপচুন রিংগুলির স্পষ্টতম দৃশ্য সামনে এনেছে। নাসা তার অফিসিয়াল ব্লগ পোস্টে বলেছে- বেশ কয়েকটি উজ্জ্বল, সরু রিং ছাড়াও, ওয়েবের চিত্রটি স্পষ্টভাবে নেপচুনের ক্ষীণ ধুলোর ব্যান্ডগুলিরও ছবি তুলেছে। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, তিন দশক আগে নেপচুনের বলয়ের যে ছবি দেখা গিয়েছিল, তা ছিল খুবই অস্পষ্ট। জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ অনেক স্পষ্ট ছবি পাঠিয়েছে।

নেপচুনের বলয় নিয়ে গবেষণাকে এই ছবি অনেক এগিয়ে দেবে। ১৯৮৯ সালে, নাসার ভয়েজার ২ নেপচুনের প্রথম ছবি তোলে। আমাদের সৌরজগতের বাইরের গ্রহগুলি তদন্ত করার জন্য মহাকাশ সংস্থা নাসার পাঠানো, ভয়েজার ২ নেপচুনের উত্তর মেরু থেকে প্রায় ৪,৯৫০ কিলোমিটার উপরে চলে যায়। লঞ্চের ৪৫ বছর পরেও, ভয়েজার ২ এখনও পৃথিবী থেকে দূরে নেভিগেট করছে। বিজ্ঞানীরা জানান, মহাকাশ থেকে নেপচুন গ্রহকে গাঢ় বেগুনি রঙের দেখায়। সেই সঙ্গে এই গ্রহের গায়ে এক প্রকার নীলচে আভাও দেখা যায়।

কারণ সূর্যের আলো সেখানে ভীষণ ক্ষীণ। পৃথিবী থেকে নেপচুনের দূরত্ব ৪৩০ কোটি কিলোমিটার। পুরু বরফের চাদরে ঢাকা গ্রহটি। এর আগে, হাবল স্পেস টেলিস্কোপ নেপচুনের  নীল চেহারা প্রকাশ করেছিল। তবে , নেপচুনকে ওয়েবে নীল দেখায়নি। নেপচুনে মিথেন সমৃদ্ধ বায়ুমন্ডল রয়েছে। মিথেন গ্যাস দ্বারা লাল আলো শোষণের ফলে নেপচুনকে নীল রঙের দেখায়। কিন্তু ওয়েবের টেলিস্কোপ দৃশ্যমান আলোর বর্ণালীতে কাজ করে না। নিয়ার-ইনফ্রারেড ক্যামেরা (NIRCam) ০.৬ থেকে ৫ মাইক্রনের কাছাকাছি-ইনফ্রারেড রেঞ্জে কাজ করে। নেপচুনে উপস্থিত মিথেন গ্যাস লাল এবং ইনফ্রারেড আলোকে এতটাই দৃঢ়ভাবে শোষণ করে যে গ্রহটি এর কাছাকাছি-ইনফ্রারেড তরঙ্গদৈর্ঘ্যে বেশ অন্ধকার। নেপচুনের বলয় সম্পর্কে বিজ্ঞানীদের আগ্রহ অনেক দিনের। কিন্তু, উপযুক্ত প্রযুক্তির অভাবে এত দূরের গ্রহের চার দিকের বলয় ভাল ভাবে পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হয়নি। টেলিস্কোপের ছবিগুলিতে নেপচুনের বলয়গুলি অত্যন্ত স্পষ্ট ভাবে ফুটে উঠেছে। - সূত্র: অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশক: সরদার মোঃ শাহীন
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম সুজন
বার্তা সম্পাদক: ফোয়ারা ইয়াছমিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আবু মুসা
সহ: সম্পাদক: মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিস: ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
বার্তা বিভাগ: বাড়ি # ৩৩, রোড # ১৫, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com