অদৃশ্য হওয়ার জ্যাকেট আবিষ্কার করলো চীন

প্রকাশের সময় : 2023-01-18 12:57:59 | প্রকাশক : Administration
অদৃশ্য হওয়ার জ্যাকেট আবিষ্কার করলো চীন

হ্যারি পটারের সেই বিখ্যাত ‘ক্লোক অব ইনভিজিবিলিটি’র কথা মনে আছে নিশ্চয়ই! এবার বাস্তবে এমনই এক বস্তু আবিষ্কার করলেন চীনের এক দল গবেষক। এই কোট পরলেই হ্যারি পটারের মতো অদৃশ্য হওয়া যাবে। শুধু তাই-ই নয়, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স-যুক্ত সিকিউরিটি ক্যামেরাতেও ধরা পড়বে না ‘অদৃশ্য’ব্যক্তি।

আসলে এটি একটি কোট। আর পাঁচটা সাধারণ কোটের থেকে একে আলাদা ভাবে চিহ্নিত করা যাবে না বলে দাবি গবেষকদের। আর এটাই এর বিশেষত্ব। এই কোট পরলেই হ্যারি পটারের মতো অদৃশ্য হওয়া যাবে। শুধু তাই-ই নয়, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সযুক্ত সিকিউরিটি ক্যামেরাতেও ধরা পড়বে না ‘অদৃশ্য’ব্যক্তি।

নতুন আবিষ্কৃত এই পোশাকটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘ইনভিসডিফেন্স’। যা ক্যামেরার নজরকেও অনায়াসে ধোঁকা দিতে পারবে। তবে এই ধরনের অদৃশ্য হওয়ার পোশাক ব্যবহারে সরকার ছাড় দেবে কি না তা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট-এর প্রতিবেদন বলছে, এই কোট পরলে দিনের বেলায় অনায়াসে অদৃশ্য হওয়া যাবে। আবার রাতেও ইনফ্রারেড ক্যামেরাকে বিভ্রান্ত করা যাবে।

এই পোশাকের দামও খুব একটা বেশি হবে না বলে দাবি করেছেন গবেষকরা। বাংলাদেশি টাকায় এই অদৃশ্য পোশাকের দাম পড়বে সাড়ে ৭ হাজার টাকা।

গবেষকদের দাবি, এই ধরনের পোশাক যুদ্ধক্ষেত্রে অত্যন্ত উপযোগী। শত্রুপক্ষের নজর থেকে বাঁচতে এই পোশাক কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে বলে মত তাঁদের। যদিও, সে ক্ষেত্রে এই পোশাকের প্রযুক্তির আরও উন্নতির প্রয়োজন বলেও জানিয়েছেন গবেষকরা। - সূত্র: অনলাইন

 

সম্পাদক ও প্রকাশক: সরদার মোঃ শাহীন
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম সুজন
বার্তা সম্পাদক: ফোয়ারা ইয়াছমিন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আবু মুসা
সহ: সম্পাদক: মোঃ শামছুজ্জামান

প্রকাশক কর্তৃক সিমেক ফাউন্ডেশন এর পক্ষে
বিএস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড,
ওয়ারী, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০ হতে প্রকাশিত।

বানিজ্যিক অফিস: ৫৫, শোনিম টাওয়ার,
শাহ মখ্দুম এ্যাভিনিউ, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
বার্তা বিভাগ: বাড়ি # ৩৩, রোড # ১৫, সেক্টর # ১২, উত্তরা, ঢাকা।
ফোন: ০১৯১২৫২২০১৭, ৮৮০-২-৭৯১২৯২১
Email: simecnews@gmail.com